Friday, March 9, 2018

Payza Account ওপেন করে টাকা ইনকাম করুন ও যাবতীয় কাজে ব্যবহারের কলা-কৌশল আলোচনা (পর্ব-০১)

সবাইকে সালাম জানিয়ে শুরু করছি আজকের দিনের পোষ্ট। অনলাইনে আমরা অনেকেই ইনকাম করি এই ইনকামের অর্থ বিভিন্ন কার্ড বা একাউন্টের সাহায্য যেমন- Payza, Paypal, Skrill, Neteller, Money bookers ইত্যাদির মাধ্যমে নিজের পকেটে আনা যায়।এর মধ্য বর্তমানে বাংলাদেশী তথা আমাদের উপকার স্বার্থে ও সুবিধার প্রেক্ষিতে আজকে পেইজা নিয়ে আলোচনা করব। পূর্বে বিভিন্ন পোষ্টের কমেন্টে অনেক ভাই/বন্ধুরা অনুরোধ করেছিলেন- কি ভাবে পেইজা একাউন্ট পেতে পারি বা ওপেন করতে পারি? 

তবে এই পোষ্টটি বিস্তারিত আলোচনার পূর্বে আপনাদের কাছে অনুরোধ রাখব- আপনারা কাজ শুরু করবার পূর্বে প্রথমত আমার এই পোষ্টটি একবার ভাল করে পড়ে নিন। কোথায় কি সমস্যা বা দরকারী পরামর্শ আছে তা নোট করে নিন। তারপর কাজের নির্দেশনা শুরু করুন। অবশ্য কাজের সুবিধার জন্য আমার এই পিডিএফ ফাইলটি ডাউনলোড করে নিয়ে এটি অনুসরন করে পেইজা কাজ শুরু করতে পারবেন। আশা করি তাতে বুঝতে অনেক সুবিধা হবে।

প্রথমত জানা যাক পেজা কি?

Payza একটি পেপালের মতই ইন্টারনেটে অর্থ লেনদেনের সহজ ও জনপ্রিয় পদ্ধতি। এর পূর্বের নাম ছিলো এলার্টপে।মুলত যারা নেটের বিভিন্ন সাইটে ইনকাম করেন তারা তাদের অর্থ গ্রহনের জনন্য, পাবার জন্য এলার্ট পে ব্যবহার করেন। এলার্টপের সদর দপ্তর বাড়ী কানাডাতে।অর্থাৎ এটি একটি কানাডিয়ান প্রতিষ্ঠান।২০০৪ সালে মাত্র ৬ জন কর্মচারী নিয়ে এলার্ট পে যাত্রা শুরু করে। এখন এটি বর্তমানে প্রায় ২৫০ জনের অধিক কর্মচারী ও ১ কোটির বেশী গ্রাহক নিয়ে একটি বিশাল প্রতিষ্ঠানে পরিণত হয়েছে। প্রতিদিন প্রায় ১০,০০০ নতুন ব্যবহারকারী এলার্ট পে সাইটে রেজি করছে। বিশ্বের প্রায় ২০০ টি দেশে এর সার্ভিস চালু রয়েছে। এখানে প্রায় ৪৫ টি মুদ্রায় অর্থ লেনদেন করা যাবে।তাছাড়া এই প্রতিষ্ঠানের ৫২ টি দেশে জোনাল ব্যাংকিং সুবিধা প্রদান করে থাকেন।


এলার্টপে/Payza সাইটে ০২ ধরনের একাউন্ট তৈরির সুযোগ দিয়ে থাকে তথা-
  • Personal Starter
  • Business
এর মধ্য যে কোন একটিতে বিনামূল্য রেজিঃ করা যায় এবং পরবর্তীতে যে কোন সময়ে একাউন্ট পরিবর্তন বা আপগ্রেড করা যায়।তিনটি একাউনটের সাহায্য নিরাপদে কেনাকাটা করা ও বিনামূল্য অন্য ব্যবহারকারীকে টাকা পাঠানো যায়। অবশ্য এর বাইরে তিনটি একাউন্টের আলাদা সুযোগ সুবিধা দিয়ে থাকে যেমন-

১. Personal Starter 

এই ধরনের একাউনটের একমাত্র সুবিধা হচ্ছে অন্য Payza ব্যবহারকারী থেকে টাকা দিতে/নিতে কোন ফী লাগেনা। তবে এখানে কোন ক্রমেই ব্যাংক ক্রেডিট কার্ডের মাধ্যমে টাকা পাওয়া যাবে না। এবং মাসে ৪০০ ডলারের বেশী অর্থ গ্রহন করা যাবে না এবং সব পেমেন্টসহ ২০০০ ডলারের বেশী অর্থ গ্রহন করা যাবে না। যারা ফ্রিল্যান্স বা অন্য সাইটে কাজ করেন তারা এখানে সকল ধরনের সুবিধা পাবেন। এথানে টাকা গ্রহন বা প্রেরনের কোন সীমাব্ধতা নাই। তবে এখানে অন্য এলার্ট পে ইউজার থেকে টাকা গ্রহন করলে ২.৫% + ০.২৫% ডলার ফী দিতে হয়। এর আরেকটি সুবিধা হল- ব্যবহারকারীর নিজের কোন ওয়েব সাইট বা ব্লগ থাকলে এলার্ট পে যুক্ত করে কোন পণ্য বা সার্ভিস বিক্রি করতে পারবেন ও গ্রাহকদের কাছ থেকে সহজেই টাকা গ্রহন করতে পারবেন।

3. Business

এই একাউন্টির সাহায্য আপনার নিজস্ব ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানের নামে অনলাইনে অর্থ লেনদেন করতে পারবেন। এখানে একটি একাউন্টির সাহায্য একাধিক ব্যবসায় পরিচালনা করা যায়। এবং অন্য সকল সুবিধা ও সার্ভিস চার্জ Personal Pro একাউন্টের মতই।আপনাদের সুবিধার জন্য এখানে নিম্নরুপ একটি চিত্র প্রদর্শন করছি।এখানে যাবতীয় সুবিধা, সার্ভিস চার্জ ও ফী এর তালিকা দেয়া আছে (শুধুমাত্র বাংলাদেশের জন্য) অথবা নীল হাইলাইট লেখাতে ক্লিক করুন- Payza Services Charge

একাউন্ট ওপেন করবার পূর্বে কিছু পরামর্শ-

একাউন্ট ওপেন করবার পূর্ব কিছু নিয়ম নীতি আছে। সেই গুলো একটু নোট করে নিন-
  • যেমন- ১। একাউন্টে আপনার যে নাম দিবেন তা ঠিক করে নিন।এখানে পক্সি হিসাবে কারোর নাম দিবেন না। বা ভূয়া একাউন্ট ওপেন করতে যাবেন না।কারন এটা কোন ভাওতাবাজী সাইট নয়। প্রতিটি কাজের এখানে ভেরিফিকেশন করা হয়। তাই সাবধান!
  • ২। বিশেষ করে যাদের বয়স ১৮ বছর হয়েছেন বা ভোটার হিসাবে অন্তভূক্ত হয়েছেন তারাই এই একাউন্ট ওপেন করার উপযুক্ত। এখানে যে নাম দিবেন তা ভোটার অআইডি অনুসারে দিতে হবে। মিক্ষাগত যোগ্যতার সনদ এখানে মুল ব্যাপার নয়। বিশেষ করে এলার্ট পেতে যখন টাকা উঠাতে যাবেন সেখানে ব্যাংক একাউন্ট ও Payza একাউন্টে কিন্তু একই নাম হতে হবে। সঠিক না হলে কোনভাবেই অর্থ উত্তলোন করতে পারবেন না। অবশ্য এখানেও ভেরিফিকেশনের ব্যাপার আছে। যারা ব্যাংকে এর মাধ্যমে টাকা উঠাতে যাবেন বিশেষ করে চেক নিয়ে সেখানে ব্যাংক কর্তৃপক্ষ অআপনার ভোটার অআই.ডি চাইবেন।
  • ৩। আমি নিজেও অবশ্য এমন অসুবিধার সম্মুখে পড়েছিলাম। আমি একটি সাইটে ইনকাম এর কাজ করতাম। সেখানের একাউন্টে আমার নাম সনদপত্রনুসারে লিখেছিলাম। যথন ব্যাংকে গেলাম ব্যাংক কর্তৃপক্ষ আমাকে টাকা প্রেরন করলেন না। বললেন, আপনার ভোটার আই.ডি কার্ড সংশোধন করে নিয়ে আসুন। মূল ব্যাপরা হল- আমার ভোটার আইডি ও সার্টিফিকেটে নাম একই রকম ছিল। কিন্তু সেখানে নামের অক্ষরের হেরফের ছিল বলে এই সমস্যা হয়েছিল। পরবর্তীতে কষ্ট করে আমাকে পূনরায় একাউন্ট করতে হয়েছিল।

  • ৪। মুলত এমন কিছু সাইট আসে যেখানে কোনভাবেই নিজের নাম ও মেইল ঠিকানা পরিবর্তন করা যায়না। যেমন- এলার্ট পে, পেপাল।তাই এখানে সঠিকভাবে কাজটি করতে হয়।
  • ৫। Payza একাউন্ট করতে নতুন করে একটি মেইল একাউন্ট ওপেন করে নিয়ে কাজটি করলে ভাল হয়। আর এই মেইল একাউন্টির প্রমান হল আপনিই এলার্টপে একাউন্টের মালিক ও আপনিই অর্থ পাবেন। অবশ্য যাদের পূর্বে মেইল একাউন্ট আছে সেটি থেকে করলেও সমস্যা নাই।
  • ৬। প্রথমত Payza একাউন্টে রেজি এর সময় নাম, সেইল ঠিকানা সঠিক করে দিবেন। কেননা, ভূল হলে পরবর্তীতে কোনভাবেই পরিবর্তন করা যাবে না।অন্য ঠিকানা বা তথ্য গুলো পরিবর্তন করা যাবে।
  • ৭। রেজি এর ২য় পর্যায়ে একটি পিন নম্বর দিতে বলবে। এখানে আপনার পচ্ছন্দনীয় ৬/৮ সংখ্যার পিন নং দিন। এখানে আপনি আপনার পরীক্ষার রেজি বা রোল নং হিসাবে দিতে পারেন। আমি কিন্তু আমার বিশ্বৰ রোল নং ব্যবহার করেছি যাতে মনে থাকে। তাছাড়া পিন নম্বরটি লেখা রাখা ভাল। আপনি যদি পিন নম্বর ভুলে যান তাহলে কোনভাবেই নতুন পিন নিতে বা পরিবর্তন করতে পারবেন না। আবার এলার্ট পে থেকে কোন সমাধান পাবেন না। তাই এখানে বিফলে গেলে আরেকটি একাউন্ট তৈরি করতে হবে।
  • ৮। রেজিঃ শেষ পর্যায়ে ক্যাপচা কোড পরিবর্তন করতে হয় এটি অনেক ঝামেলার কাজ। ক্যাপচা সঠিক পূরন না হলে একাউন্ট তৈরি হবে না। আসলে এলার্টপেতে ক্যাপচা বুঝতে অনেক অসুবিধা সৃষ্টি করে। এখানে পরামর্শ হল- আপনি যে ক্যাপচাটি বুঝতে পারছেন সেটি দিবেন না। ঐ ক্যাপচা পরিবর্তন করে অন্য ক্যাপচা দিয়ে কোড পূরন করুন যেটি বুঝতে পেরেছেন।

 ১. কিভাবে Payza অ্যাকাউন্ট খুলবেন?

  • প্রথমে নিচের ব্যানারে ক্লিক করুন অথবা এখানে


Payza এর ওয়েবসাইট এ যাওয়ার জন্য। এরপর নিচের মত পেজ আসবে, উপরে দেখবেন Sign Up লেখা আছে, সেখানে ক্লিক করুন। নিচে স্ক্রীন শট দিলাম।

Sign Up ক্লিক করার পর নিচের মত পেজ আসবে, সেখান থেকে Personal ক্লিক করুন।


এরপর যে পেজ আসবে সেখানে আপনার নাম, ই-মেইল, পাসওয়ার্ড দিলে Get Started এ ক্লিক করুন, নিচে স্ক্রীন শট দেখেন।




উপরোক্ত যাবতীয় তথ্য সাবমিট করলে তারা আপনার ই মেইল এ একটি ভেরিফিকেশন মেইল পাঠাবে। এজন্য আপনাকে ই মেইল অ্যাকাউন্ট এ যেতে হবে। যেয়ে দেখবে Payza থেকে একটি মেইল পাবেন, সেখানে যে লিঙ্ক দেয়া থাকবে সেটা ক্লিক করলেই আপনার অ্যাকাউন্ট সফলভাবে খোলা হয়ে যাবে। অ্যাকাউন্ট খোলা হয়ে গেলে অ্যাকাউন্ট ভেরিফাই করে নিতে হয়, আপনি অনলাইনে কাজ করে টাকা Payza তে গ্রহন করতে পারবেন, কিন্তু ভেরফাই না করলে সেটা উত্তলন করতে পারবেন না, ভেরিফাই করা থাকলে টাকা বিভিন্নভাবে উঠাতে পারবেন যেমনঃ ফ্লেক্সিলোড, ব্যাংক এর মাধ্যমে, মাস্টারকার্ডের মাধ্যমে, অথবা চেকের মাধ্যমে। অ্যাকাউন্ট ভেরিফাই করতে হলে আপনার National ID Card, Bank Statement থাকতে হবে, Bank Statement মানে আপনি ব্যাংক এ কত টাকা জমা দিয়েছেন, কত উঠিয়েছেন সেটার একটা পেপার। তো নিচে দেখুন কিভাবে অ্যাকাউন্ট ভেরিফাই করতে হবে।

২. কিভাবে Payza অ্যাকাউন্ট ভেরিফাই করবেন?

এবারতো আপনার একাউন্ট তৈরি হল। ভেরিফিকেশন করতে হবে। এখানে শুধু একাউন্ট তৈরি করলেই হবে না। ভেরিফিকেশন করার ব্যবস্থা করতে হবে।ভেরিফিকেশন না করলে কোন অবস্থাতেই আপনার এলার্টপে একাউন্ট দ্বারা লেনদেনের উপযোগী করতে পারবেন না। মুলত ভেরিফিকেশন হল- এলার্টপে কর্তৃপক্ষ আপনাকে পরীক্ষা করবেন আপনি এলার্টপের বৈধ গ্রাহক কিনা? একবার ভেরিফিকেশন হয়ে গেলে আর কখনোই ভেরিফিকেশনের দরকার হয়না। তাহলে এবার দেখাব কিভাবে আপনার এলার্টপে ভেরিফিকেশন করবেন।

এলার্টপে তে মূলত ০৩ ধরনের ভেরিফিকেশনের ব্যবস্থা আছে তথা-
  • ১. Bank Transfer or Bank wire (Swift) Deposit- 
এখানে ব্যাংক ভেরিফিকেশনের মাধ্যমে যাচাই করা হয়ে থাকে। যারা কোন ব্যাংকের গ্রাহক তাদের সেই ব্যাংকের এখানে (Swift)কোড প্রবেশ করাতে হয়। আমাদের দেশের ব্যাংকগুলোকে এলার্টপে কর্তৃপক্ষ (Swift)কোডের ভেরিফিকেশন করতে এখনো প্রয়োজন মনে করেনি।তাই এখানে বাংলাদেশ অন্তভূক্ত নাই।
  • ২. Credit Card Validation- এখানে যারা মাষ্টার কার্ড ব্যবহার করেন তারা ভেরিফিকেশন করাতে পারবেন। এখানে এলার্টপে তে আপনার মাষ্টার কার্ডের পিন প্রবেশ করাতে হবে। অতপর এলার্টপে আপনার মাষ্টার কার্ড থেকে কিছু ডলার কেটে নিবে। পরিশেষে এলার্টপে একাউন্টে গিয়ে ভেরিফিকেশনে জানাতে হবে কত ডলার কাটা হয়েছে। যদি তথ্য ঠিক দেন তাহলে একাউন্ট ভেরিফিকেশন হয়ে গেল।
  • ৩. Complete both- এখানে কেউ যদি A ও B অপশনের দুটোই ভেরিফিকেশন করাতে চান তাহলে এই অপশনটি কাজে লাগাতে হবে।
  • ৪. Phone Validation- এই অপশনটি সবাই ব্যবহার করেন। অআপনিও এই অপশনটি বেছে নিন। এখানে এলার্টপে কর্তৃপক্ষ আপনার মোবাইল নম্বরে একটি গোপন কোড প্রেরন করবে। অতপর সেই কোডটি প্রবেশ করালে আপনার একাউন্ট ভেরিফিকেশন হয়ে যাবে।
এই কাজটি করতে আপনার একাউন্টে লগইন করুন। আপনি আপনার অ্যাকাউন্ট এ লগইন করার পর নিচের মত পেজ আসবে, সেখান থেকে বাম দিকে আপনার নাম থাকবে, নামের উপর ক্লিক করে, Verification নামে একটা অপশন পাবেন, সেখানে ক্লিক করুন। নিচে স্ক্রীনশট দেখুন।

তারপর নিচের মত পেজ আসবে, সেখান থেকে Document Validation এ ক্লিক করুন। নিচে স্ক্রীন শট দিলাম, আমার অ্যাকাউন্ট ভেরাফাই করা তাই Document Validation লেখাটি নেই, লেখা আছে Document Validation Complete.


Document Validation এ ক্লিক করার পর সেখানে আপনার National ID Card এর স্ক্যান কপি, এবং ব্যাংক স্টেটমেন্ট এর স্ক্যান কপি দিয়ে সাবমিট করুন, তাহলে ২৪ ঘন্টার মধ্যেই আপনার অ্যাকাউন্ট ভেরফাই হয়ে যাবে (যদিও লেখা থাকে ৫-৭ দিন লাগবে), এবং অ্যাকাউন্ট এ আপনার নামের নিচে লেখা দেখতে পাবেন “Personal Verified”. ব্যাস আপনার অ্যাকাউন্ট তো খোলা এবং ভেরিফাই করা হয়ে গেল, তো চলুন দেখি কিভাবে টাকা উঠাতে হয়।

সারকথা

আজ সম্পূর্ণভাবেই এখানে  শেষ করছি Payza একাউন্টের আলোচনার বিষয়বস্তু। আশা করি আমাদের লেখা ২টি পর্ব সম্পূর্ণ পড়লে অসুবিধা থাকার কথা নই। এখানে আমরা আপ্রাণ চেষ্টা করেছি বিস্তারিতভাবে প্রতিবেদনটি তৈরি করার, যাতে সকলের পড়তে ও বুঝতে সুবিধা হই। তবুও কেউ ভূলের উর্দ্ধে নই। এই পোষ্টটি বিষয়বস্তু অলংকরন করতে ও সাজাতে আমাদেরকে প্রায় ৪ দিন সময় ব্যয় করতে হয়েছে। এই পোষ্টটি পড়ে কেউ যদি উপকৃত হন তাহলেই মনে করব আমাদের এই লেখার শ্রম ও কৌশল স্বার্থক হয়েছে। অসুবিধা বা প্রশ্ন থাকলে তা কমেন্ট করে জানাবেন। উত্তর দেওয়ার চেষ্টা করব। এর পরেও যদি Payza একাউন্ট সম্পর্কে আরো কিছু তথ্য পাই তাহলে পরবর্তীতে আপডেটেড পোস্ট হিসাবে পাবলিশ করার ইচ্ছা থাকল। পরিশেষে সবার দীর্ঘায়ূ ও সুস্বাস্থ্য কামনা করছি। -আল্লাহ হাফেয-
Previous Post
Next Post

0 comments: Post Yours! Read Comment Policy ▼
লক্ষ্য করুনঃ
পোষ্টের সাথে সম্পৃক্ত নয় এমন কোন কমেন্ট করা যাবে না। কোন কারণ ব্যতীত আপনার ব্লগের লিংক শেয়ার করতে যাবেন না। সবসময় গঠনমূলক মন্তব্য প্রদানের চেষ্টা করবেন। আমরা সবার মতামত সমানভাবে মূল্যায়ন করি এবং যথাসময়ে প্রতি উত্তর দেয়ার চেষ্টা করি।

Post a Comment

 
Copyright © বিডি.পয়সা ক্লিক,নিবন্ধিত ও সংরক্ষিত. মডিফাইঃ পিসি টীম, সার্ভার হোস্টেডঃ গুগল সার্ভিস