Tuesday, October 18, 2016

আসুন জেনে নিই ব্যাকলিংক সম্পর্কে A-Z তথ্যাদি! সেই সাথে থাকছে ট্রাস্টেড কিছু ব্যাকলিংক সাইট যেখানে আপনার ব্লগের অজস্র ভিজিটর বৃদ্ধি করতে পারবেন!!

আসসালামু আলাইকুম।
সবাইকে সালাম ও শুভেচ্ছা জানিয়ে শুরু করছি আজকের দিনের টিপস মূলত ওয়েব সাইটের ব্যাংকলিংক সংগ্রহ বিষয়ে। মূলত যারা ওয়েব সাইট বা ব্লগ থেকে অনলাইনের মাধ্যমে টাকা আয় করতে চান তাদের জন্য প্রথম শর্ত হলো ভিজিটর। আর ভিজিটর আনার জন্য প্রথম শর্ত হল সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন আর সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন এর মাধ্যমে ভাল অবস্থানে থাকতে হলে প্রয়োজন ব্যাকলিংক এখানে ব্যাকলিংক বললে ভুল বলে হবে বলতে হবে কোয়ালিটি ব্যাকলিংকস। তবে সার্চ ইঞ্জিনের প্রথম পেজে যেতে হলে আপনাকে প্রচুর এসইও করতে হবে। আর এসকল এসইও করার মধ্যে অন্যতম একটি ধাপ হচ্ছে লিংকবিল্ডিং বা ব্যাকলিংক তৈরি করা। ভালোমানের সাইট বা হাইপিআর সম্পন্ন সাইটগুলোর সাথে যদি আপনি আপনার সাইটকে সংযুক্ত করতে পারেন তাহলে আপনার সাইটটি গুগলের কাছে অর্থাৎ সার্চইঞ্জিনের কাছে খুবই জনপ্রিয় হবে। আর এ জনপ্রিয়তার সুবাদে আপনি পৌছে যেতে পারেন সার্চ রেজাল্ট এর প্রথম পেজে। বিভিন্নভাবই ব্যাকলিংক তৈরি করা যায়। তবে ব্যাকলিংক তৈরি করাটা কিন্তু খুবই ধের্য্য ও সময়ে ব্যাপার।

ব্যাকলিংকস কি?

ব্যাকলিংকস হল আপনার সাইটের একটি লিংক যা অন্য কোন সাইটে প্রকাশ করা হবে অর্থাৎ অন্য সাইটে প্রকাশিত আপনার লিংককেই ব্যাকলিংক বলা হয়। ব্যাকলিংক  হচ্ছে একটি ওয়েব সাইটের পেজ র‍্যাংক বাড়ানোর মূল হাতিয়ার।

উদাহরনস্বরূপঃ 
আপনার একটি ব্লগ আছে এবং আপনার ব্লগের Url টি অন্য কারও ব্লগে যুক্ত করলেন, তাহলে আপনি ঐ ব্লগ হতে আপনার ব্লগের একটি Backlink পেয়েছেন বলে ধরে নেয়া হবে। মনে করুন আপনার ব্লগটির নাম “ব্লগার ট্রিকস” এবং যার ব্লগে আপনার ব্লগের লিংকটি যুক্ত করেছেন তার ব্লগের নাম “অনলাইন টিপস্”- এ ক্ষেত্রে আপনি “অনলাইন ইনকাম” নামক ব্লগটি হতে আপনার ব্লগের একটি Backlink পেয়েছেন বলে গন্য হবে। এ ভাবে আপনি যতটি ব্লগের সাথে নিজের ব্লগের Url টি যুক্ত করবেন আপনার ব্লগের Backlink তত বাড়তে থাকবে। এটি Search Engine Optimization (SEO) এর জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি জিনিস। Backlinks হচ্ছে Off Page Optimization এর একটি কার্যকরী অংশ।

ব্যাকলিংক তো বুঝতে পারলেন এবার চলুন দেখে নেই কোয়ালিটি ব্যাকলিংক কি ?

কোয়ালিটি ব্যাকলিংক হচ্ছে একটি সম্পর্কিত ব্যাকলিংক অর্থাৎ আপনি যদি স্বাস্থ্য সম্পর্কে ব্লগ তৈরি করে থাকেন তবে স্বাস্থ্য সম্পর্কিত কোন সাইটে প্রকাশিত লিঙ্ককেই কোয়ালিটি ব্যাকলিংক বলা হয়ে থাকে । ১০০ টি সাধারন ব্যাকলিংক যে পরিমান কাজ করবে ১ টি কোয়ালিটি ব্যাকলিংক সেই পরিমান কাজ করে থাকে । প্রকারভেদের দিক থেকে  ব্যাকলিংক সাধারণত দুই প্রকার । নিম্নে দেওয়া হল-
  •  ডু-ফলো  ব্যাকলিংক
  •  নো-ফলো ব্যাকলিংক  
ডু-ফলো  ব্যাকলিংক এবং  নো-ফলো ব্যাকলিংক সন্মন্ধে পড়ে আলোচনা করা হবে । তবে প্রাথমিক অবস্থায় মনে রাখুন  ডু-ফলো ব্যাকলিংক সবচেয়ে কার্যকরী।

Backlinks এর গুরুত্ব

Search Engine Optimization এর ক্ষেত্রে Backlinks খুবই গুরুত্বপূর্ণ কাজ করে। আপনার ব্লগটিকে যদি Search Engine এর কাছে গুরুত্বপূর্ণ এবং গ্রহনীয় করে তুলতে চান তাহলে অবশ্যই আপনার ব্লগের Backlinks তৈরী করে নিতে হবে। যার ব্লগের Backlinks যত বেশী তার ব্লগটি সার্চ ইঞ্জিনের কাছে তত বেশী গ্রহনযোগ্যতা পাবে। আপনার ব্লগের প্রতিটি Backlinks কে ব্লগের এক একটি ভোট হিসেবে মনে করতে পারেন।

কিভাবে পাওয়া যাবে ব্যাকলিংক

ইন্টারনেট এ পাওয়া যায় না এমন কিছুই নেই শুধুমাত্র হাত দিয়ে স্পর্শ করা ছাড়া।তাই আপনি আপনার ব্যাকলিংক ও খুজে পাবেন ইন্টারনেটেই।আসুন দেখে নেই কিভাবে কিভাবে আপনি ব্যাকলিংক পাবেন আপনার ওয়েব সাইটের জন্য-

  • ১।আর্টিকেল এর মাধ্যমে   ২।ব্লগিং এর মাধ্যমে ৩।অন্যের ব্লগে কমেন্ট করার মাধ্যমে ৪।ফোরাম পোষ্টের মাধ্যমে ৫।ফোরামে কমেন্ট করার মাধ্যমে ৬।প্রেস রিলিজের মাধ্যমে। ৭।ডাইরেক্টরিতে ওয়েব সাইট সাবমিট এর মাধ্যমে ৮।লিংক এক্সচেন্জ এর মাধ্যমে ৯।ওয়েব সাইটে এড দেয়ার মাধ্যমে ১০।ব্যাকলিংক কেনার মাধ্যমে। (পেড ব্যাকলিংক) ইত্যাদি
তাই আপনাদের সাথে কিছু ওয়েব এড্রেস শেয়ার করছি প্রকৃত পক্ষে এগুলো হচ্ছে ফ্রি ব্যাকলিংক জেনারেটর। এর মাধ্যমে আপনি খুব অল্প সময়ে প্রায় নামমাত্র পরিশ্রমে হাজার হাজার ফ্রি ব্যাংকলিক তৈরি করতে পারবেন ইনশআল্লাহ। নিচের ওয়েব সাইট গুলোতে গিয়ে সাইন আপ করুন এবং আপনার ওয়েব সাইটের হোম এড্রেসটা সম্পূণ এড্রেসটা লিখুন এর পর যদি অন্য কোন তথ্য চায় তা পূরণ করুন। সবগুলো ফিল্ড পুরণ করা হলে ফ্রি ব্যাকলিংক তৈরি করার জন্য নিদিষ্ট বাটনে ক্লিক করুন। তথাপি উক্ত সাইট গুলোতে যেখানে ফেসবুক কমেন্ট রয়েছে। সেখানে আপনার ব্লগ এড্রেসটি শেয়ার করুন।

ক। easyhits4u


বেশ কিছু ফ্রি ব্যাকলিংক পাওয়ার জন্য এটি একটি উপযুক্ত সাইট । এখানে ফেসবুকের কমেন্ট বক্সে আপনার ব্লগ লিংক প্রেরন করতে পারেন। তথাপি এখানে আর্টিকেল লিখে, ব্যানার অ্যাড পাবলিশ করে ভিজিটর সংগ্রহ করার সুযোগ দিচ্ছে। এই সাইটের পার ডে ভিজিটর প্রায় ৪০,০০০, এলেক্সা র‌্যাংক ৫০০০। উক্ত সাইট ২০০৩ সাল হতে ব্যাংকলিংক সার্ভিস প্রেরন করছে। সাইটে যোগদান করতে ক্লিক করুন এখানে

খ। Trafficswirl


এটিও ব্যাকলিংক সংগ্রহ ও আপনার ওয়েব সাইটের ভিজিটর বৃদ্ধির একটি জনপ্রিয় সাইট। এই সাইটের কাজ হবহু উপরের সাইটের মতই। তবে বেশী ব্যাংকলিংক সুবিধা গ্রহন করার জন্য আপনাকে এখানে ক্রেডিট আর্ন করতে হবে কিংবা কোন প্যাকেজ পে করতে হবে। তবে মাঝেমধ্য এরা সেরা অফার দিয়ে থাকে যেমন ১ ডলারে ৫০০ ভিজিটর কিংবা ১০০ ব্যাকলিংক ইত্যাদি। সাইটে সাইনআপ করতে ক্লিক করুন এখানে

গ। LinksManagement


ব্যাকলিংক সংগ্রহকৃত সাইটের মধ্য এই সাইটটি আমার সবচেয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করেছে। অন্য সকল সাইট হতে এদের ব্যবস্থাপনা সিস্টেম খুবই আপডেটেড ও ইউনিক। তথাপি সাইটের বয়স বেশী না হলেও স্বল্প সময়েই ইউজারদের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে সক্ষম হয়েছে। এই সাইটের ব্যাকলিংক পাওয়ার অন্যতম শর্ত হল তাদের সাইটের লিংক আপনাকে বিভিন্ন ভাবে শেয়ার করতে হবে। তার বিনিময়ে আপনাকে ক্রেডিট দেওয়া হবে। এই ক্রেডিটের বিনিময়ে আপনার সাইটের ইউনিক ব্যাকলিংকসহ ভিজিটর পেয়ে যাবেন। এটা কোন স্ক্যাম সাইট নই। বরই তথ্যবহুল ও ট্রাস্টেড। তথাপি এখানে শর্তভাবে আপনি ক্রেডিট পাওয়ার পাশাপাশি ভাল অর্থ আয় করার সুযোগ দিবে এই সাইটটি। লিংক ম্যানেজমেন্ট সাইটে ফলো করতে অনুসরন করুন এখানে

ব্যাকলিংক সম্পর্কে আমাদের যে ভূল ধারনা

যেকোনো সাইটে আপনার সাইটের ব্যাকলিংক স্থাপন করলেই যে আপনার সাইটের ভিসিটর বারবে বা কাঙ্ক্ষিত ভিসিটর পেয়ে জাবেন এটা সম্পূর্ণ ভুল তথ্য। যারা সাধারনত ব্যাকলিংক স্থাপন কেই এসইও মনে করেন তারাই সাধারণত এই ভুল তথ্যটির বাহক। সাধারন কথায় বলতে গেলে এটি একটি এসইও বিধ্বংসী কাজ যা কিনা আপনার সাইটের মানকে একেবারে নামিয়ে দিতে পারে।


এখন আমার লিখাটি পরে নতুনদের মনে একটি প্রশ্ন জাগতে পারে, আর তা হোল-”অন্য সাইটে যদি আমার সাইটের ব্যাকলিংক স্থাপন নাই করতে পারলাম তাহলে আমরা ঐ নিদ্রিস্ট পরিমান ভিসিটর পাবো কোথা থেকে?” তাদের জন্য আমার উত্তর হচ্ছে- ভাই, আপনাদের তো কেও ব্যাকলিঙ্ক করতে নিশেধ করেনাই। তবে কথা হচ্ছে আপনি যখন ব্যাকলিঙ্ক স্থাপন করবেন তখন আপনাকে খেয়াল রাখতে হবে যে আপনার তৈরি করা ব্যাকলিঙ্কটির মান সঠিক বা কোয়ালিটি ব্যাকলিঙ্ক হচ্ছে কিনা!

উপসংহার

আলোচনার একদম শেষ পর্যায়ে। আরো কিছু বেসিক ধারনা দেওয়ার ইচ্ছা ছিল কিন্তু টিউনের কলেবর বেশি হয়ে যাবে বলে থামতে হল। অবশ্য সুযোগ হলে পরবর্তী টিউনে আরো কিছু বিষয় আলোচনার চেষ্টা করব। তথাপি আশা করি, এই টিউনের আলোচনা হতে ব্যাকলিংক বিষয়ে সম্যক ধারনা পাবেন। এবং ফ্রিভাবে ব্যাংকলিংক করার পাশাপাশি আপনার সাইটে নিয়মিত ভাল কনটেন্ট প্রকাশনা থাকতে হবে এবং ধৈর্য্যসহকারে এসইও করার চেষ্টার প্রয়াস করতে হবে। কিভাবে একটি ব্লগ সাইটে ভাল কনটেন্ট লিখতে হয় তার নমূনা দেখতে অনুসরন করুন এখানে। পরিশেষে  এই টিউন সম্পর্কে কোন মতামত, অভিযোগ থাকলে কমেন্ট পাবার প্রত্যাশা ব্যক্ত করছি। আজ এখানেই।-আল্লাহ হাফেয
Previous Post
Next Post

0 comments: Post Yours! Read Comment Policy ▼
লক্ষ্য করুনঃ
পোষ্টের সাথে সম্পৃক্ত নয় এমন কোন কমেন্ট করা যাবে না। কোন কারণ ব্যতীত আপনার ব্লগের লিংক শেয়ার করতে যাবেন না। সবসময় গঠনমূলক মন্তব্য প্রদানের চেষ্টা করবেন। আমরা সবার মতামত সমানভাবে মূল্যায়ন করি এবং যথাসময়ে প্রতি উত্তর দেয়ার চেষ্টা করি।

Post a Comment

 
Copyright © বিডি.পয়সা ক্লিক,নিবন্ধিত ও সংরক্ষিত. মডিফাইঃ পিসি টীম, সার্ভার হোস্টেডঃ গুগল সার্ভিস