Thursday, October 13, 2016

এসো নিজের কম্পিউটার নিজেই কিনি ও শিখি! [হার্ডওয়্যার পর্ব-০৮ ] কোন ব্রান্ডের ডিভিডি রম ক্রয় করবেন, কোনটি সব থেকে ভাল? সাথে থাকছে ডিভিডি রম বিষয়ক গুরুত্বপূর্ণ তথ্যাদি

আসসালামু আলাইকুম।
সবাইকে সালাম ও শুভেচ্ছা জানিয়ে শুরু করছি হার্ডওয়্যার বিষয়ক আজকের দিনের পোষ্ট। সেই হিসাবে শিরোনাম অনুযায়ী আলোচনাতে থাকছে অপটিক্যাল ডিস্ক ড্রাইভ তথা ডিভিডি রম/ডিভিডি রাইটার সম্পর্কে তথ্যাদি, কোন ড্রাইভগুলো ভাল হবে ইত্যাদি।

দৃষ্টি আকর্ষণঃ হার্ডওয়্যার সম্পর্কিত আমার অন্যান্য প্রকাশনা

অপটিক্যাল ড্রাইভ কি?

কম্পিউটিংয়ে একটি অপটিক্যাল ডিস্ক ড্রাইভ হল একটি ডিস্ক ড্রাইভ যা লেজার লাইট বা ইলেক্ট্রম্যাগণেটিক তরঙ্গ ব্যবহার করে দৃশ্যত আলোর বর্ণচ্ছটার কাছাকাছি বা মধ্যে অপটিক্যাল ডিস্ক পড়া বা লিখার ক্রিয়ার অংশ হিসেবে। কিছু ড্রাইভ ডিস্ক থেকে শুধু পড়তে পারে, কিন্তু সাম্প্রতিক ড্রাইভগুলো সাধারণত পড়া ও লিখা উভয় ক্ষমতার হয়ে থাকে যাকে বার্নার বা রাইটার নামেও ডাকা হয়। কম্পেক্ট ডিস্ক, ডিভিডি এবং ব্লু-রে ডিস্ক হল সাধারণ ধরনের অপটিক্যাল মিডিয়া যা এই সব ড্রাইভ দিয়ে পড়া এবং রেকর্ড করা যায়। অপটিক্যাল ড্রাইভ হল সামষ্টিক নাম ড্রাইভ বলতে বোঝানো হয় "সিডি" "ডিভিডি" বা "ব্লু-রে" যার সঙ্গে "ড্রাইভ" এবং "রাইটার" কথাটি যুক্ত করা হয়।

 অপটিক্যাল ড্রাইভের সাতকাহন

অপটিক্যাল ডিস্ক ড্রাইভ হল ভোক্তাদের ব্যবহৃত ব্যবহার সামগ্রী যেমন সিডি প্লেয়ার, ডিভিডি প্লেয়ার এবং ডিভিডি রেকর্ডারের অখন্ড অংশ। এগুলো কম্পিউটারে সাধারনভাবে ব্যবহার করা হয় সফটওয়্যার এবং ভোক্তাদের বন্টিত ডিস্ক পড়ার জন্য এবং তাদের প্রয়োজন অণুযায়ী ডাটা জমা, রেকর্ড এবং বিনিময় করার জন্য। ফ্লপি ডিস্ক ড্রাইভ যার সামর্থ্য ১.৪৪ মেগাবাইট অপটিক্যাল ড্রাইভের দ্বারা প্রতিস্থাপিত হয়েছে এদের কম দাম এবং উচ্চ ক্ষমতার কারনে। বেশিরভাগ কম্পিউটার এবং ভোক্তাদের হার্ডওয়্যারে অপটিক্যাল রাইটার রয়েছে। ইউএসবি ফ্ল্যাশ ড্রাইভ, উচ্চ ক্ষমতা, ছোট, এবং কম দামি ও বহনযোগ্য হওয়ায় পড়া ও লেখার সক্ষমতার জন্য প্রয়োজন হয়।



স্থানীয়ভাবে ব্যবহারের জন্য ও ডাটা বণ্টনের জন্য ডিস্ক রেকর্ডিং শুধু মাত্র যেসব ফাইল ভোক্তাদের গৃহস্থালি যন্ত্রপাতিতে চালানো যায় (মিডিয়া, সিনেমা, গান ইত্যাদি) এবং কম পরিমাণের (সাধারণ ডিভিডি ৪.৭ গিগাবাইট) তাতেই সীমাবদ্ধ। কিন্তু শুধু ছোট পরিমাণে, গণ-উৎপাদিত বিশাল সংখ্যক চিহ্নিত ডিস্ক কমদামি এবং দ্রুতগতির একক রেকর্ডিং থেকে।
অপটিক্যাল ডিস্ক কম পরিমাণের ডাটা ব্যাক আপ রাখার জন্য ব্যবহৃত হয়। কিন্তু অপটিক্যাল ডিস্ক দিয়ে পুরো হার্ড ডিস্ক ব্যাক আপ রাখা যাতে কয়েকশ গিগাবাইট তথ্য থাকতে পারে (২০১১ অনুসারে) বাস্তবসম্মত নয়। বড় ধরনের ব্যাকআপগুলো এক্সটার্নাল হার্ড ড্রাইভ দিয়ে করা হয় যেহেতু তাদের দাম কমে গেছে। আর পেশাদার পরিবেশে চৌম্বকীয় টেপ ড্রাইভ দ্বারা এই ব্যাক আপ রাখা হয়।

অপটিক্যাল ড্রাইভের প্রকারভেদ

হার্ডড্রাইভের মতই অপটিক্যাল ড্রাইভ দুই প্রকারের রয়েছে তথারুপঃ ইন্টারনাল ও এক্সটার্নাল। মূলত যে সকল  অপটিক্যাল ড্রাইভে শুধুমাত্র সিডি ডিভিডি ওপেন কিংবা রিড করা যায় সেটি হল ডিভিডি ড্রাইভ। অপরদিকে যে গুলোতে এই গুলো পাঠ করার সাথে অন্য কোন ডিস্কে রাইট করা যায় অর্থাত কপি করা যায় সেটি হল ডিভিডি রাইটার। অপটিক্যাল ড্রাইভগুলো কাজের গতি অনুযায়ী ০৮ এক্স হইতে ১২০ এক্স পর্যন্ত হয়ে থাকে।

 

অপটিক্যাল ড্রাইভের জনপ্রিয় ব্রান্ড সমূহ

বাজারে প্রচলিত অপটিক্যাল ড্রাইভের জনপ্রিয় ব্রান্ডসমূহ হচ্ছে Asus, Liteon, HP, LG, Samsung, BenQ, Philips, Sony। উল্লেখ্য এদের মধ্য শীর্ষ ও পৃথিবীর সর্ববৃহৎ মেনুফ্যাকচারার হচ্ছে Liteon. উল্লেখ্য Liteon অন্যান্য বিখ্যাত কোম্পানী যেমনঃ ডেল, এইচপির, সনির মনিটর প্রস্তুত করে দেয়। শুধুমাত্র নিজেদের নাম দিয়ে অপটিক্যাল ড্রাইভ তৈরি করে থাকে।


বাজারে বিদ্যমান সকল অপটিক্যাল ড্রাইভগুলো ১২ মাসের ওয়ারেন্টি প্রদান করা হয়ে থাকে।

ডিভিভি রম/রাইটারের যত্নআত্তি

শুধু ডিভিডি রম/রাইটার ক্রয় করে থাকলেই হবেনা। সাথে যত্ন-আত্তির ব্যাপার রয়েছে। কারন এটি অনেকটা সেনসেটিভ। তাই একটু যত্নবান না হলে আপনার সাধের জিনিসটি নষ্ট হতে বেশী সময় নিবেনা। অপটিক্যাল ড্রাইভটি ভাল রাখতে নিম্নরুপ টিপস্ কাজে লাগাতে পারেন-
  • কখনোই সিডি বা ডিভিডি-রম ড্রাইভের ট্রেটি হাত দিয়ে ধাক্বা দিয়ে বন্ধ করবেন না। এতে ভবিষ্যতে সমস্যা সৃষ্টি হতে পারে। ট্রেটি বন্ধ করার জন্য এর অন-অফ বোতাম ব্যবহার করুন।
  • সিডি বা ডিভিডি সব সময় বিশেষ খাপে বা বাক্সে সংরক্ষণ করুন। এতে করে আপনার প্রয়োজনীয় ডিস্ক গুলো ক্ষতির হাত থেকে রক্ষা পাবে।
  • সব সময় সিডি বা ডিভিডির বহিরাবরণে হাত রাখন। সিডি বা ডিভিডির ডেটা অংশে যেন কোনো ভাবেই আঙুলের ছাপ বা আচঁড় না পড়ে সেদিকে খেয়াল রাখুন।
  • সিডি বা ডিভিডির ডেটা অংশে ধুলো বালি, আঙুলের ছাপ অথবা ফাঙ্গাস জমলে তা কাচ পরিষ্কার করার তরল (গ্লাস ক্লিনার সলিউশন) দিয়ে মুছে ফেলুন। সিডি বা ডিভিডির ডেটা অংশটি পরিষ্কারের জন্য সব সময় নরম এবং পরিষ্কার কাপড় অথবা তুলা ব্যবহার করুন।
  • অতিরিক্ত দাগ (ঙ্ক্র্যাচ) পড়া সিডি বা ডিভিডি কখনোই আপনার ড্রাইভে প্রবেশ করাবেন না। এতে করে সিডি বা ডিভিডি-রম ড্রাইভের লেন্সের ক্ষতি হতে পারে।
  • সিডি বা ডিভিডি চালানোর সময় যদি অতিরিক্ত কম্পন (ভাইব্রেশন) এবং শব্দ হয়, তাহলে সিডি বা ডিভিডি-রম ড্রাইভটি আনুভূমিক অবস্থানে আছে কি না, তা পরিক্ষা করে দেখুন। আবার ডিস্ক ভারসাম্যহীন হলে এ রকম শব্দ করে থাকে।
  • সিডি বা ডিভিডি-রম ড্রাইভের লেন্সটি কমপক্ষে মাসে একবার পরিষ্কার করুন।

 শেষকথা

আলোচনার শেষ পর্যায়ে। আপনাদেরকে ঘিরেই অনলাইনে আমার পথ চলা। সুতরাং বুঝতেই পারছেন, আপনাদের এক একটা মতামত আমার কাছে অনেক গুরুত্বপূর্ন।   ভালো থাকবেন, সুস্থ থাকবেন। দেখা হবে আগামি টিউনে।।। 
Previous Post
Next Post

0 comments: Post Yours! Read Comment Policy ▼
লক্ষ্য করুনঃ
পোষ্টের সাথে সম্পৃক্ত নয় এমন কোন কমেন্ট করা যাবে না। কোন কারণ ব্যতীত আপনার ব্লগের লিংক শেয়ার করতে যাবেন না। সবসময় গঠনমূলক মন্তব্য প্রদানের চেষ্টা করবেন। আমরা সবার মতামত সমানভাবে মূল্যায়ন করি এবং যথাসময়ে প্রতি উত্তর দেয়ার চেষ্টা করি।

Post a Comment

 
Copyright © বিডি.পয়সা ক্লিক,নিবন্ধিত ও সংরক্ষিত. মডিফাইঃ পিসি টীম, সার্ভার হোস্টেডঃ গুগল সার্ভিস