Monday, May 23, 2016

পিটিসি সাইট নিয়ে গল্প-কথন! এখন হইতে একটি সাইটের মাধ্যমেই জানতে পারবেন কোন পিটিসি সাইটগুলো আসল কিংবা নকল!!

সুপ্রিয় টেকটিউনস কমিউনিটি সাইটের সবাইকে সালাম ও শুভেচ্ছা জানিয়ে শুরু করছি টিউনের মূল পর্বের কাজ।
ইন্টারনেটের আর্শীবাদের কল্যানে আমরা আমাদের প্রয়োজনীয় কাজ গুলো শেষ করছি। হাল সময়ে ইন্টারনেটের একটি গুরুত্বপূর্ণ আকর্ষণ অনলাইনে ইনকাম। বর্তমানে এমন অবস্থা নেট কানেকশন থাকার মানেটা হল ইনকামের সাইটে ঢু মারা। হ্যা সত্যিই অনলাইনে ইনকামের সাইট রয়েছে সেখানে অনেকেই কাজ করছেন ও সফলতা পেয়েছেন। বাট, অনলাইনে ইনকামের বিভিন্ন পন্থা আছে যেমন: Freelance Site, Out sourcing, Blogging, Survey, Bitcoin earn, Advertise publishing, and PTC site.

তবে আপনি যেখানেই আয় করুন না কেন আপনাকে অনেক পরিশ্রম, ধৈর্য ও বুদ্ধিমত্তার পরিচয় দিতে হবে। আসলে অনলাইনে ইনকাম করা এত সহজ নই, সেখানে কাজ করতে হলে আপনাকে নিদিষ্ট বিষয়াদি জানতে হবে, পরীক্ষা দিতে হবে, ভাল ইংরাজী জানতে হবে আরো কত !! অনেকেই বলেন নেট কানেকশন থাকলে অতি সহজেই ইনকাম করা যায়। আসলে এটি ভ্রান্ত ধারনা! কারন, আপনাকে প্রফেশনালি আয় করতে হলে অবশ্যই ফ্রিল্যান্স ও ব্লগিং সম্পর্কে জানতে হবে। এবং এর পিছনেতো যথষ্টে সময় দিতে হবে। অনেকেরই দেখা যায় কিছুদিন সময় দিয়ে চিরকালের মত গায়েব হয়ে গেছেন। যাইহোক যারা অনলাইনে ইনকামের মাধ্যমে নিজের ভাগ্যের চাকা ঘুরিয়েছনে কিংবা বড় অংকের টাকা অর্জন করছেন তার অধিকাংশই ইংরাজী ব্লগ কন্টেন্ট, ফ্রিল্যান্স কিংবা গুগলের মত পাবলিশার করে। তবে হ্যা যারা এই সকল কাজ জানেন না তাদের কাছে মামুলি ইনকামের শর্টকার্ট রাস্তা হল Survey, Bitcoin earn, PTC site. কারন এখানে ক্লিক/ক্যাপচা পূরন করলেই কিছু আয় করা যায়।

পিটিসি সাইট কি?


আপনারা সকলেই জানেন,অনলাইনে আয় করা একেবারে সহজ কাজ নয়। তবে হ্যা,খুব একটা কঠিন কিছুও না।অনলাইনে আয় করতে হলে আপনাকে ধৈর্যশীল হতে হবে।তা না হলে আপনার এ পথে আসার দরকার নাই।কারন এক লাফে কেউ কখনো গাছের আগায় উঠতে পারে না।অনলাইনে আয়ের অনেক উপায় আছে।এর মধ্যে সবচেয়ে সহজ উপায় হল-বিজ্ঞাপন দেখে আয় করা।মানে আপনি একটা ওয়েবসাইট দেখবেন,বিনিময়ে আপনি টাকা পাবেন।যাকে Paid To Click (PTC)।এতে আপনাকে কম্পিউটারের বিশেষ কোন কাজ জানতে হবে না।আপনার যা যা লাগবে-(১)ইন্টারনেট সংযোগ সহ একটি কম্পিঊটার (২)একটি ই-মেইল আইডি (৩)একটি অনলাইন পেমেন্ট আইডি,যেমনঃ-Payza or Paypal। বর্তমানে যে গুলো বৈধ পিটিসি সাইট রয়েছে তার সবগুলোর কাজ প্রায় একই যেমন: রেজি: করা এবং অ্যাড দেখা। একটি বিষয়ে স্মরন রাখবেন আপনি যে পিটিসি সাইটেই কাজ করুন না কেন কোন রেফারেল/ইনভেস্ট ব্যতিত মাসে ৩ ডলারের বেশী আয় করতে পারবেন না। তাই এখানে আয় করতে হলে আপনাকে Rented Referral এবং কিছু অর্থ Invest করলে আয় বৃদ্ধি করা যায়। তাহলে এবার বুঝতেই পারছেন কতটুকু সময় ব্যয় করে আপনি কর্ত অর্থ আয় করছেন? বর্তমানে অনেকে এই সকল পিটিসি বাদ দিয়ে বিট কয়েন আয়ের দিকে ছুটছেন। কারন, হিসাব করে দেখে গেছে বিট কয়েন সাইটের আয় পিটিসি হতে অনেক সহজ এবং পিটিসি হতে বেশী আয় করা যায়। যাইহোক এই কথা বলব না যে, পিটিসি সাইট হতে কেউ সফলতা পাননি! অবশ্য সেটা মামুলি।

আসল কিংবা নকল কোন পিটিসি সাইটকে চিহৃিত করুন



পিটিসি শব্দটির পূর্ণরূপ হচ্ছে পে পার ক্লিক। সোজা বাংলায় বিজ্ঞাপনে ক্লিক করে আয় করা। বাংলাদেশে অনেকগুলো পিটিসি সাইট আছে যেগুলো সম্পর্কে আমরা অনেকেই জানি। কিন্তু এসব পিটিসি সাইটে টাকা দিয়ে রেজিষ্ট্রেশন করা লাগে। পুরো বিশ্বজুড়ে যতগুলো পিটিসি সাইট ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছে সেগুলোর বেশিরভাগ সাইটে ফ্রী রেজিষ্ট্রেশন করে উপার্জন করা যায়। অনেকে মনে করেন পিটিসি সাইট মানেই ভুয়া, বিজ্ঞাপনে ক্লিক করে আয় করা সম্ভব না। বর্তমানে অনলাইনে প্রতিদিন শত শত নতুন পিটিসি সাইট বের হচ্ছে। সেগুলোর বেশীরভাগই স্ক্যাম বা স্ক্যাম পিটিসি সাইটের কারনে ভাল পিটিসি সাইটগুলোর সুনাম ক্ষুন্ন হচ্ছে। ফলে অনেকে না বুঝেই ভূল পথে পরিচালিত হচ্ছেন। হ্যা আপনি যদি প্রতিনিয়ত নেটে সময় ব্যয় করেন বাট ফ্রিল্যান্স সম্পর্কে তেমন অভিজ্ঞ নই তাহলে পিটিসি সাইটে কাজ করতে পারেন। তবে, এর সাথে ফ্রিল্যান্স শেখাটার চেষ্টা থাকতে হবে। আপনি যখন ফ্রিল্যান্স সাইটে কাজ করার একবার মজা পেয়ে যান তাহলে আর পিটিসি সাইট ভাল লাগবে না। সুতরাং যারা ইন্টারনেটে নতুন তাদের অধিকাংশই পিটিসি সাইটের মাধ্যমে অনলাইন আয়ের হাতে খড়ি নেন।



বর্তমানে অনেককে দেখা যাচ্ছে টেকটিউনস সহ বিভিন্ন ব্লগ সাইটে পিটিসি সাইট নিয়ে টিউন/ব্লগ করছেন। সেখানে লিংক শেয়ার করছেন মূলত রেফারেল সংগ্রহ কিংবা অন্যকে জানান দেওয়ার জন্য। কিন্তু তারা যে বিষয় নিয়ে টিউন করছেন সেখানে অনেক ক্ষেত্রে তাদের পেমেন্ট প্রুফ চিত্র শো করছেন না। কারন, একটাই তিনি নিজে ঐ সাইটে নতুন তথাপি রেফারেল সংগ্রহ করার জন্য অন্যকে প্রমোট করছেন। এখানে রেফারেল সংগ্রহ করতে আপত্তি করছিনা। কিন্তু তিনি উক্ত সাইটে কাজ করে পেমেন্ট পেয়ে প্রমানাদিসহ টিউন করেন তাহলে সহজেই সাইট যাচাই করা হয়ে যায়। উপরন্তু দেখা যাচ্ছে তিনি নিজে তো ভূল পথে গিয়েছেন অপরদিকে অন্যকেও ভোগান্তি সৃষ্টি করছেন।

এবার অনেকেই প্রশ্ন রাখবেন তাহলে আপনি কি করে বুঝবেন সাইট আসল নাকি নকল। হ্যা পিটিসি সাইট পরীক্ষা করার জন্য বেশ কিছু সাইট আছে তার মধ্যে অন্যতম সাইট হল PTC Investigation। এই সাইটের মাধ্যমে খুব সহজেই জানতে পারবেন কোন পিটিসি সাইট আসল-নকল, কোনটি বন্ধ হয়ে গেছে, কে পে করছে তার বিবরনাদি সহ তালিকা। তাছাড়া যে কোন পিটিসি সাইট সম্পর্কে রিভিউ নিতে তাদের ইমেইলে ফিডব্যাক দিতে পারেন। সুতরাং এবার যে কোন পিটিসি সাইটে কাজ করার পূর্বে PTC Investigation এর মাধ্যমে নিশ্চিত হতে পারবেন আপনি ঠিক পথে পরিচালিত হচ্ছেন তো?

ও হ্যা বলতেই ভূলে গেছি PTC Investigation এর ওয়েব সাইট এখানে

সার কথা

যাইহোক আলোচনা করতে এসে টিউনের শেষ পর্যায়ে। টিউনটি আলোচনা করার মূল বিষয় ছিল ভূয়া/স্ক্যাম পিটিসি সাইট সম্পর্কে সচেতন করা। তথাপি যারা পিটিসি সাইটে কাজ করছেন কিংবা করবেন তাদের সর্বদা এলিট/লিগ্যাল সাইটে কাজ করাটা শ্রেয় যেমন: ইউজার ও এলেক্সা রেটিং ভাল, অনেকদিন ধরে পে করছে, ক্লায়েন্ট ফিডব্যাক ভাল ইত্যাদি। পরিশেষে পূনরায় রিটিট করছি পিটিসি সাইটের ইনকামের সাথে একটু হলেও ফ্রিল্যান্স শিখাটার চেষ্টা করিবেন। পরিশেষে আজ এই পর্যন্তই। সবাই সুস্থ থাকুন, আপনার পাশের মানুষটিকে ভাল রাখুন!
আমাকে অনুসরন করতে পারেন...
Previous Post
Next Post

0 comments: Post Yours! Read Comment Policy ▼
লক্ষ্য করুনঃ
পোষ্টের সাথে সম্পৃক্ত নয় এমন কোন কমেন্ট করা যাবে না। কোন কারণ ব্যতীত আপনার ব্লগের লিংক শেয়ার করতে যাবেন না। সবসময় গঠনমূলক মন্তব্য প্রদানের চেষ্টা করবেন। আমরা সবার মতামত সমানভাবে মূল্যায়ন করি এবং যথাসময়ে প্রতি উত্তর দেয়ার চেষ্টা করি।

Post a Comment

 
Copyright © বিডি.পয়সা ক্লিক,নিবন্ধিত ও সংরক্ষিত. মডিফাইঃ পিসি টীম, সার্ভার হোস্টেডঃ গুগল সার্ভিস