Monday, May 9, 2016

পেইজা টিউটোরিয়ালঃ কিভাবে পেইজা একাউন্টে বিকাশের মাধ্যমে অ্যাড ফান্ডস্ তথা অর্থ ডিপোজিত ও উইথড্র করবেন?

السلام عليكم আসসালামু আলাইকুম।
সবাইকে সালাম ও নতুন বছরের ফালগুনী শুভেচ্ছা।
বর্তমানে Payza কতটা জরুরী তা ব্যবহারকরী মাত্রই অবগত। কেননা, বাংলাদেশে যেহেতু পেপালের কার্যক্রম নাই সেখানে একটু হলেও গুরু দ্বায়িত্ব পালন করছে পেইজা। পেইজা সম্পর্কে নতুন করে বলার কিছু নাই। এই বিষয়ে অসংখ্যক টিউন করা হয়েছে। বিশ্বের প্রায় ৯০ টির বেশী দেশে পেইজা কার্যক্রম আছে, সেই হিসাবে বাংলাদেশে এর আঞ্চলিক অফিস আছে। পেইজা একাউন্ট ক্রিয়েট করা খুব কঠিন কাজ নই। প্রায় ১ মিনিট সময় ব্যয় করেই এই একাউন্ট ওপেন করা যায়।

বর্তমানে কাজের উপযোগীতার কথা চিন্তা করে অনেকেই পেইজা একাউন্ট ক্রিয়েট করেছেন ও করছেন। পেইজা মূলত অন্য সকল অনলাইন পেমেন্ট গেটওয়ে সিস্টেমের মতই যেমনঃ Paypal, patoo, Ok pay, Payonior ইত্যাদি। মূলত দেশী-বিদেশী কেনাকাটা, পেমেন্ট মেথড, ট্রানজেকশন লেনদেনে এর জুড়ি বেশ ভারি। আপনারা হয়ত লক্ষ্য করেছেন বেশ কিছু দিন হল পেজা একাউন্টে নতুন একটি অপশন যোগ হয়েছে তাহল Bkash Payment Method. তাহলে এই সম্পর্কে কিছু জেনে নিই-

পেইজা একাউন্টে যোগ হল Bkash Payment Method

হ্যা সত্যিই এটি যোগ হয়েছে। আপনার একাউন্ট লগইন করলেই দেখতে পাবেন। তবে এতদিন ধরে আপনারা যারা অ্যাড ফান্ড হিসাবে পেজাতে কিছু অর্থ যোগ করার চেষ্টা করতেন মূলত ক্রেডিট কার্ড কিংবা ব্যাংক একাউন্টের মাধ্যমে। তথাপি এই কাজগুলো করা গেলেও প্রায় ৭ দিনের মত সময় লেগে যেত। কিন্তু বিকাশ অপশন যোগ হওয়াতে সাথে সাথেই অ্যাড ফান্ড যোগ করতে পারছেন ও নিশ্চিত হতে পারছেন। তবে দূঃখ জনক হলেও সত্যি যে, পেইজা হইতে ক্যাশআউট করতে এখনো বিকাশ কাজ করবেনা। আশা করা যায়, আরো কিছুদিন যাবার পর হয়ত সেটিও করা যাবে। আসলে এক সময় দেখা যাবে শুধু কিাশ নই, এখানে অন্য সকল মোবাইল ব্যাংকিং সেবা অ্যাড করা যাবে এমনটাই বলে মনে করি।

কিভাবে পেজাতে বিকাশের মাধ্যমে ফান্ড অ্যাড করবেন?

হ্যা সেইজন্য আজকের এই প্রকাশনা। উদাহরন হিসাবে বলি আজকে আমার একাউন্টে বিকাশের মাধ্যমে ৪০০৳ ফান্ডঅ্যাড করেছি এবং সিস্টেমটি আপনাদেরকে দেখাব। বিষয়টি আসলে তেমনটা জটিল নই। তাহলে কাজ শুরু করি-
১। প্রথমে পেজাতে অর্থাৎ আপনার একাউন্টে লগইন করুন > Add Funds মেনুতে ক্লিক করুন

২। বিকাশ অপশন নির্বাচন করুন

৩। নিম্নরুপ একটি চিত্র আসবে > চিত্র অনুযায়ী সকল কাজ করুন

  • { সব কিছু করার পর শুধুমাত্র bkash Transaction Id এর ফাঁকা ঘরে আপনার বিকাশের TrxID সংখ্যাটি ইনপুট করে Create Transaction ক্লিক করলেই হবে।}
৪। ব্যাস কাজ শেষ! সফলভাবে সমাপ্ত হলে আপনি আপনার মোবাইলে বিকাশ হতে একটি বার্তা এবং সেই সাথে পেজা হতে সামারি হিসাবে মেইল বার্তা পাবেন তথ্যসূত্র হিসাবে নিম্নরুপ

  •  নির্দেশনাঃ
ক। বিকাশের মাধ্যমে অ্যাড ফান্ড করলে সাথে সাথে মূল একাউন্টের পূর্বের ট্রানজেকশনের সাথে নতুন হিসাবে অর্থ যোগ হয়ে যাবে।
খ। কারেন্সী হিসাবে টাকাতে যোগ হবে ডলারে হবে না।
গ। প্রতি ট্রানজেকশনে বিকাশকে শতকরা ১.৯% চার্জ দিতে হবে। উদাহরন হিসাবে বলি আজ আমি ৪০০৳ অ্যাড ফান্ড করি। সেখানে ৭৳ কর্তন করে ৩৯২৳ যোগ হয়েছে।
ঘ। বর্তমানে পলিসি অনুযায়ী মাসে ৫০০০-৭০০০৳ বেশী ফান্ড অ্যাড করা যাবে না।
ঙ। দূঃখিত! বিকাশের মাধ্যমে ফান্ডস অ্যাডকৃত টাকা বিকাশে ফেরত পাওয়া যাবে না। তবে ব্যাংক একাউন্টে যোগ করা যাবে। সেই ক্ষেত্রে ব্যাংকভেদে চার্জ কর্তন যাবে প্রায় প্রতি লেনদেনে ২২০৳ মত। উপরন্তু উক্ত প্রসেস হতে ব্যাংক একাউন্টে অ্যাড হতে প্রায় ৪-৫ দিন সময় নেই।
চ। তবে আশা করা যায় খুব শ্রীঘই পেইজা একাউন্টে বিকাশের মাধ্যমে উইথড্র সুবিধাটা কর্তৃপক্ষ যোগ করবে। তখন উক্ত সাময়িক অসুবিধাটা দূর হবে।

সারকথা

অাশা করি এই টিউটোরিয়ালটি অনুসরন করে আপনি নিজেই উপরোক্ত কাজগুলো করতে পারবেন। তারপরেও সমস্যা থাকলে টিউমেন্ট করতে পারেন। পরিশষে আজ এই পর্যন্তই! সবার সুস্থতা কামনা করে বিদায় নিচ্ছি এবং সবাইকে আবারো বছন্তের শুভেচ্ছা "হ্যাপি নিউ বছন্ত"
Previous Post
Next Post

0 comments: Post Yours! Read Comment Policy ▼
লক্ষ্য করুনঃ
পোষ্টের সাথে সম্পৃক্ত নয় এমন কোন কমেন্ট করা যাবে না। কোন কারণ ব্যতীত আপনার ব্লগের লিংক শেয়ার করতে যাবেন না। সবসময় গঠনমূলক মন্তব্য প্রদানের চেষ্টা করবেন। আমরা সবার মতামত সমানভাবে মূল্যায়ন করি এবং যথাসময়ে প্রতি উত্তর দেয়ার চেষ্টা করি।

Post a Comment

 
Copyright © বিডি.পয়সা ক্লিক,নিবন্ধিত ও সংরক্ষিত. মডিফাইঃ পিসি টীম, সার্ভার হোস্টেডঃ গুগল সার্ভিস