Sunday, September 6, 2015

জনপ্রিয় কিছু ইমেজ হোস্টিং সাইটের সাথে পরিচিত হই! ইমেজ/ছবি আপলোড করুন যত খুশী!! যারা হোস্টিং নিয়ে সাইট বানাবেন শুধুমাত্র তাদের জন্য!!!

আসসালামু আলাইকুম।
সুপ্রিয় টেকটিউনস কমিউনিটি সাইটের সবাইকে সালাম ও শুভেচ্ছা জানিয়ে শুরু করছি আজকের টিউন।
অন্যদিনের মত টিউনের কলেবর বৃদ্ধি করার ইচ্ছা আমার নাই। যতটা সম্ভব সামারি আকারে মূল কথা দ্বারা শেষ করব। মূলত Techtunes  সাইটে আমার প্রকাশনার প্রথমদিকে বেশ কিছু পোস্ট করেছি ডোমেইন, ওয়েব হোস্টিং সম্পর্কে। এখানে আপনারা অনেকেই বেশ কিছু সম্যক ধারনা পেয়েছেন। এবং ইচ্ছা পোষন করছেন নতুন করে নিজস্ব একটি ওয়েব সাইট পাবলিশ করবেন ওয়ার্ডপ্রেস কিংবা ব্লগিং প্লার্টফর্ম কেন্দ্রিক। আসলে বর্তমানে সবাই ব্লগিং করতে ওয়ার্ডপ্রেস প্লার্টফর্মকে বেছে নেন। সেই হিসাবে আপনি এখানে পিছপা হবেন না। তবে এখানে একটি অভিযোগ রয়েছে তাহলো আপনি যদি পেইড হোস্টিং হিসাবে ১ জিবি জায়গা নেন এবং ওয়ার্ডপ্রেস দ্বারা ব্লগিং করতে প্রতিনিয়ত ছবি আপলোড করতে যান তাহলে খুবই দ্রুতভাবেই ১ জিবি ও ব্যান্ডউইথ শেষ হয়ে আসবে। তখন কি করবেন? হ্যা এরুপ জায়গা বৃদ্ধি কিংবা স্পেস ঠিক রাখার জন্য এমন কিছু সাইট রয়েছে যেখানে ছবিগুলো আপলোড করে আপনার প্রিয় হোস্টিং সাইটের জায়গা বাচাতে পারেন।



মূলত একটি সাইটে ছবির প্রয়োজন আর বলার অপেক্ষা রাখেনা। প্রায় সর্ববিষয়ক সাইটেই ছবির প্রয়োজন হয়। কিন্তু ধরুন, আপনি সাইট তৈরি করেছেন এমন একটি হোস্টিংয়ে, যাদের জায়গা খুবই কম। আপগ্রেড করতে টাকা বেশি লাগে কিংবা আপনি ফ্রি হোস্টিংয়ে সাইট হোস্ট করেছেন। কিন্তু আপনার সাইটে ছবি যোগ করা খুবই প্রয়োজন। কী করবেন এখন?
আপনি যদি না জেনে থাকেন, তাহলে জেনে নিন, ইন্টারনেটে প্রচুর সংখ্যক ফ্রি ইমেজ হোস্টিং সাইট আছে যারা আপনার ছবিকে তাদের সাইটে সংরক্ষণ করবে বিনামূল্যে। এদের একেক জনের সেবা একেক রকম। আসুন জেনে নিই বিখ্যাত কিছু ইমেজ হোস্টিং সেবার বিবরণ।

১। ইমেজ শেক



ইমেজ শেক একটি যুক্তরাষ্ট্রের কোম্পানী যেখানে আপনি কোনপ্রকার সাইন আপ ছাড়াই আপনার ছবি আপলোড করতে পারবেন বিনামূল্যে। এখানে আপনি সর্বোচ্চ ১৫মেগাবাইট পর্যন্ত ছবি আপলোড করতে পারবেন (অর্থাৎ একটি ছবির সাইজ সর্বোচ্চ ১৫মেগাবাইটের বেশি হতে পারবেনা)। এরা সাপোর্ট করে jpg, jpeg, png, gif, bmp, tif, tiff, swf জাতীয় ইমেজ ফরমেট। এদের সাইটে আপনি শুধু ছবি আপলোড করতে পারবেন, ভিডিও নয়। এটি খুবই দ্রুতগতির এবং ব্যবহারবান্ধব তো বটেই। এটির সর্বোচ্চ ব্যান্ডউইথ হচ্ছে ১০০কি.বা/ঘন্টা। আপনি যতখুশি ছবি আপলোড করতে পারবেন এই সাইটে। তবে আপনার ছবি যদি এক বছরের মধ্যে একবারও প্রদর্শন না হয়, তাহলে তাদের সার্ভার থেকে আপনার ছবি মুছে যাবে। অর্থাৎ, ছবি আপলোড করার পর তারা আপনাকে কিছু কোড দিবে। আপনার জন্য প্রযোজ্য কোডটি কপি করে প্রয়োজনীয় স্থানে পেস্ট করলে আপনার ঐ ছবিটি একটু ছোট সাইজে দেখা যাবে। কেউ যদি বড় আকারে দেখতে চায়, তাহলে ঐ ছবির উপর ক্লিক করলে ইমেজ শেক এ হোস্ট করা ছবিটি প্রদর্শিত হবে। এক বছরের মধ্যে কেউ যদি ক্লিক না করে, তাহলে স্বয়ংক্রিয়ভাবে আপনার ঐ ছবি মুছে যাবে।
সাইটের ঠিকানা- ইমেজ শেক

২। ফটোবাকেট


ফটোবাকেট বিশ্বব্যাপি জনপ্রিয় একটি সাইট যা আপনাকে সহজেই আপনার ছবি আপলোড করার সুযোগ দেয়। তবে ফটোবাকেটে আপনার রেজিষ্ট্রেশন করতে হবে। এছাড়া ফটোবাকেটে আপনি বিভিন্ন ফরমেটের ছবির পাশাপাশি 3g2, 3gp, 3gp2, 3gpp, 3p, asf, avi, divx, dv, dvx, flv, gif, moov, mov, mp4, mpeg4, mpg4, mpe, mpeg, mpg, qt, wmv, xvid, rm ফরমেটের ভিডিও-ও আপলোড করতে পারবেন। ফটোবাকেটের ব্যান্ডউইথ 1GM/month। একটি ছবির সর্বোচ্চ সাইজ হতে পারবে ১মেগাবাইট।
সাইটের ঠিকানা- ফটোবাকেট

৩। ইমেজ স্পট

আপনি এই সাইটে কোন রেজিষ্ট্রেশন ছাড়াই অসংখ্য ছবি আপলোড করতে পারবেন। তবে প্রতিটি ছবির সাইজ সর্বোচ্চ ৬৫০ কিলোবাইট হতে পারবে। ভিডিও ফাইল আপলোড করতে পারবেন না তবে jpg, png, gif ফরমেটের ফাইল আপলোড করতে পারবেন। এর ব্যান্ডউইথ আনলিমিটেড এবং এতে ছবি কখনো মুছে ফেলা হয় না। তবে এই সাইটের সমস্যা হল মাঝেমধ্য সাইটে প্রবশে করা যায় না। সাইটের ঠিকানা- ইমেজ স্পট


৪। আলকা স্পেস

সাইন আপ ব্যতীত সর্বোচ্চ বিশ মেগাবাইট ফাইল সাইজে ২০০ মেগাবাইট পর্যন্ত স্টোরেজ নিয়ে এসেছে আলকা স্পেস। এটি সাপোর্ট করে jpg, gif, png ফরমেটের ছবি। ভিডিও ফাইল আপলোডের সুবিধা নেই। আর ব্যান্ডউইথ ১০০০মেগাবাইট। সাইটের ঠিকানা- আলফা স্পেস

৫। টাইনিপিক



টাইনিপিক ও আপনাকে ইমেজ শেকের মতই সেবা দেবে। তবে এখানে আপনার একটি ছবির সাইজ সর্বোচ্চ ২৫০কি.বা হতে পারবে। jpg, jpeg, gif, bmp, png, tif ছবির ফাইল ফরমেটগুলো সাপোর্ট করে টাইনিপিক। এছাড়াও আপনি avi, mov, mpeg, divx, 3gp, qt, dv ফরমেটের ভিডিও-ও আপলোড করতে পারেন এই সাইটে। তবে এই সাইট কতদিন পর আপনার ছবি মুছে ফেলবে বা ব্যান্ডউইথ কত, তা জানা যায়নি। তবে টাইনিপিক এর সাহায্যে আপনি আপনার ছবিকে সহজেই রিসাইজ করতে পারবেন। অবশ্য অামি ব্যক্তিগতভাবে এই সাইটটি বেশী ব্যবহার করি ও ভাল লাগে।
সাইটের ঠিকানা- টাইনিপিক

৬। ফ্লিকার ডট কম



ফ্লিকার (ইংরেজী: Flickr) একটি চিত্র এবং ভিডিও আয়োজনের ওয়েবসাইট। ২০০৪ সালে লুডিকর্প কোম্পানি কর্তৃক এটি তৈরি করা হয় এবং ২০০৫ সালে ইয়াহু কর্তৃক ক্রয়কৃত একটি ওয়েব পরিষেবা মাধ্যম এটি। ব্যক্তিগত আলোকচিত্র প্রচার এবং সংস্থাপন করার জন্যে ব্যবহারকারীদের নিকট এটি একটি জনপ্রিয় ওয়েবসাইট এবং কার্যকরী অনলাইন সম্প্রদায়। আলোকচিত্র প্রচার এবং সংস্থাপন করার জন্যে আলোকচিত্র গবেষক এবং ব্লগারদের দ্বারা এটি ব্যাপকভাবে ব্যবহৃত হয়। সাইটের ঠিকানা- Flickr

৮। ইমেজ ভেনচার



ইমেজ ভেনচার অনেকটা ইমেজ শেকের মতই। এতে সাইন আপের প্রয়োজন নেই। প্রতিটি ফাইলসাইজ সর্বোচ্চ দেড় মেগাবাইট পর্যন্ত সাপোর্টেড। JPG ও JPEG ছাড়া অন্য কোন ফরমেট সাপোর্ট করে না। ভিডিও আপলোডের সুবিধাও নেই। আর এক বছরের মধ্যে যদি কেউ একসেস (ভিজিট) না করেন, তাহলে ছবি স্বয়ংক্রিয়ভাবে মুছে দেয়া হয়। সাইটের ঠিকানা- ইমেজ ভেনচার

আরো বেশ কিছু সাইট দেখতে হলে নিচের লিংকে ক্লিক করুন- এখানে

উপরোক্ত আলোচনানুয়ায়ী এখানে বিশেষ কয়েকটি জনপ্রিয় সেবার কথা তুলে ধরা হয়েছে। এর বাইরে যদি আপনিও অন্য কোন সেবা ব্যবহার করেন এবং সেই সার্ভিসটিকে খুবই ভাল বলে মনে করেন, তাহলে অনুগ্রহপূর্বক টিউমেন্টের ঘরে তার লিংক দিয়ে দিন। পরবর্তীতে তা পোস্টের অন্তর্ভূক্ত করা যাবে। আজকের পোস্ট সমূহদ্বয় কোন ক্রটি বিচ্যুতি থাকলে তাহা ক্ষমা সুন্দর দৃষ্টিতে দেখার আহবাণ রাখছি। পরিশেষে পোস্ট সম্পর্কে কোন মনোভাব থাকলে টিউমেন্ট হিসাবে বার্তা দিতে পারনে। সবাই সুস্থ থাকুন। -আল্লাহ্ হাফেজ-
Previous Post
Next Post

0 comments: Post Yours! Read Comment Policy ▼
লক্ষ্য করুনঃ
পোষ্টের সাথে সম্পৃক্ত নয় এমন কোন কমেন্ট করা যাবে না। কোন কারণ ব্যতীত আপনার ব্লগের লিংক শেয়ার করতে যাবেন না। সবসময় গঠনমূলক মন্তব্য প্রদানের চেষ্টা করবেন। আমরা সবার মতামত সমানভাবে মূল্যায়ন করি এবং যথাসময়ে প্রতি উত্তর দেয়ার চেষ্টা করি।

Post a Comment

 
Copyright © বিডি.পয়সা ক্লিক,নিবন্ধিত ও সংরক্ষিত. মডিফাইঃ পিসি টীম, সার্ভার হোস্টেডঃ গুগল সার্ভিস