Tuesday, July 7, 2015

ডট টিকে হতে নিজের নামে একটি ফ্রি ডোমেইন লুফে নিন! সাথে থাকছে A-Z টিউটোরিয়াল!!

প্রিয় টিউনার বন্ধুরা আশা করি ভাল আছেন। আজকের টিউনে আপনাদেরকে দেখাবো কিভাবে টিকে সাইট হতে ডোমেইন নিবেন এবং তাহা ব্লগ/ওয়েব সাইটে কাজে লাগাবেন। অপরদিকে যারা গুগল ব্লগস্পট সাইটে কাজ করছেন তাদের ব্লগ লিংক টিকে সাইটে যোগ করে ছোট করে নিতে পারেন।

ডট টিকে সম্পর্কে একটু ধারনা:

আসলে ফ্রি ডোমেইন রেজি: করার জন্য বিভিন্ন সাইট রয়েছে।তার মধ্যে অন্যতম ফ্রি ডোমেইনের সাইট হল ডট টিকে।  ডট টিকে সাইটের অবস্থান অর্থাত হেড কোয়ার্টার হল-ইউরো খ্যাত অর্থনীতি প্রবৃদ্ধি শক্তিশালী রাষ্ট্র সুইজার ল্যান্ডের নীল সাগরের মধ্যে ছোট্ট একটা দ্বীপে। অবশ্য দ্বীপটা অনেক আধুনিক ডিজিটাল। সেখানে সুইজার ল্যান্ডের টিকে সাইট সহ বেশ কিছু নামি-দামি প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানের রিজিওনাল অফিস রয়েছে। অবশ্য এখানে সার্ভার-হোস্ট বাংকার রয়েছে এই সবুজ-নীল টিলা ভূমিতে। ডট টিকে সাইটে গ্রাহক সংখ্যা প্রায় ৩.৫ মিলিয়ন। প্রতিদিন এখানে ৫০০-১০০০ ইউজার রেজি: করছেন। ডট টিকে কর্তৃপক্ষ বর্তমানে বেশ কিছু সাইটকে তাদের রিসেলার/মনিটরিং হিসাবে নিয়োগ প্রদান করেছে। ফলে, এখানে বর্তমানে ডোমেইন রেজি: করলে তাহা অন্য প্রভাইডার হিসাবে শো করছে। 
এবার আসুন তাহলে দেখে নিই কিভাবে আপনি একটি ফ্রি ডোমেইন নিবেন।
১ম ধাপ: প্রথমেই সাইটে যান এখানে। তারপরে সেখানে আপনার ওয়েব সাইট বা ব্লগের যে নাম দিতে চান সেটি দিয়ে Go বাটনে ক্লিকি করুন। যেমন আমি ব্লগের নাম দিব pchelplab24.tk। যেহেতু আমি ডট টিকে সাইট হতে ডোমেইন ফ্রী নিচ্ছি সেহেতু আমার সাইটের এড্রেস হবে http://www.pchelplab24.tk



আপনার ডোমেইন নেমটি যদি অন্য কেউ নিয়ে থাকে তাহলে আপনাকে মেসেজ দেখাবে তখন আরেকটি নেম ট্রাই করবেন।
২য় ধাপ:
আপনি যদি আপনার ব্লগ স্পট সাইটকে টিকে ডোমেইনের সাথে করতে চান তাহলে Forward this domain to অপশনটি সিলেক্ট করে ব্লগ সাইটের ঠিকানা দিতে হবে যেমন: abdullahinfolab.blogspot.com। অপরদিকে আপনার যদি ফ্রি/পেইড হোস্টিং থেকে থাকে তাহলে সেখানে ডোমেইন যোগ করতে হলে Use DNSনির্বাচন করতে হবে। তবে আমার দৃষ্টিতে সহজভাবে রেজি: করার জন্য আপনি ১ম অপশনটি তথা Forward this domain to অপশনটির মাধ্যমে করুন। আরেকটি মজার ব্যাপার হল: অন্য যে কারোর ব্লগ ঠিকানা কিংবা কাল্পনিক ব্লগের ইউ.আর.এল দিতে পারেন। (মূল ব্লগ মালিকের কোন সমস্যা হবেনা, কেননা, আপনার ব্লগের DNS কেউ জানে না)


যদি Use DNS ব্যবহার করতে চান তাহলে Use DNS1 রেডিও বাটনে ক্লিক করুন। এবার Your Own DNS2 এ ক্লিক করুন। তারপরে দেখুন Server Name নামে দুইটি ফিল্ড আছে। এখানে আমি প্রথমটিতে দিয়েছি এবং দ্বিতীয়টিতে দিয়েছি যথাক্রমে-
ns1.hostmight.com
ns2.hostmight.com
আপনি যেখানে হোস্টিং করবেন হোস্ট প্রভাইডার আপনাকে এই দুটি কি হবে জানিয়ে দিবে। আমি যেহেতু  hostmight হতে হোস্টিং নিয়েছি তাই সেটির সার্ভার নেম ইউস করে দেখালাম।



এবার Registration length এ 3 months5 কে 12 months সিলেক্ট করে দিন। এর ফলে আপনার ডোমেইন নেমটি ১বছরের জন্য রেজিস্ট্রেশন করা হয়ে যাবে। এর বেশী করা যায় না। পড়ে আপনাকে রিনিউ করে নিতে হবে। তারপরে ক্যাপচা6 দিন। তারপরে নিচে Sign Up বাটন পাবেন সেখানে ক্লিক করুন।
৩য় ধাপ: এখন একই পেজের নিচে নতুন কিছু অপশন আসবে। আপনি এই অপশন ব্যবহার করে আপনার অন্য কোন একাউন্ট যেমন ফেসবুক, ইয়াহু, গুগল ব্যবহার করে একাউন্ট খুলতে পারে।
যদি এই সিস্টেমে ওপেন করতে চান তাহলে ইন্টারনেট ব্রাউজারে নতুন ট্যাব নিয়ে আপনার যে কোন একটি মেইল (যেমন: গুগল) একাউন্ট লগইন করে রাখতে হবে। এবার Sign in using Account with এ-গিয়ে গুগল সিলেক্ট করলে গুগল মেইল রিডাইরেক্ট হয়ে একাউন্ট ক্রিয়েট হয়ে যাবে। তবে এটি  ব্যতিত  অন্যভাবে ওপেন করতে চান তাহলে ইমেইল এড্রেস ব্যবহার করে একাউন্ট ক্রিয়েট করাই ভাল।
সুতরাং এ পর্যায়ে আপনি email address1 এ ক্লিক করুন। তারপরে দেখবেন ইমেইল এড্রেস লেখার একটি ফিল্ড আসবে। সেখানে Email address2 দিয়ে NEXT3 এ ক্লিক করুন।



Your Name4 ঘরে আপনি আপনার নাম দিন। Password5 এবং Password (again)5 এর ঘরে আপনার পাসওয়ার্ড টাইপ করুন। Create Account6  বাটনে ক্লিক করুন।



৪র্থ ধাপ: আপনার কাজ শেষ। আপনি আপনার ইমেইল-এ যান। সেখানে একটি কনফার্মেশন মেইল দেখবেন। অনেক সময় ইমেইল্টি ইনবক্সে নাও পেতে পারেন, তাই জাংক ফোল্ডার ও চেক করবেন।




৫ম ধাপ: এবার ডট টিকে আপনাকে যেই ইমেইল পাঠাবে সেখান হতে Confirmation Code1 কপি করুন। তারপরে ভেরিফিকেশন লিংকে2 ক্লিক করুন। তারপরে নতুন একটি ট্যাব ওপেন হবে। সেখানে কনফারমেশন কোডটি পেস্ট করে Confirmation বাটনে ক্লিক করুন।



আপনি এখন চাইলে http://www.dot.tk সাইটে গিয়ে Email Address & password দ্বারা লগিন করে দেখতে পারেন। ব্যাস কাজ শেষ।


লগইন করে ডোমেইন প্যানেলে গিয়ে আপনার ডোমেইনের যাবতীয় কাজ যেমন: ব্লগে রিডাইরেক্ট, সার্ভার/ডিএনএস পরিবর্তন সহ সকল কাজ করতে পারবেন। এর ডোমেইন প্যানেল অনেকটাই পেইড ডোমেইন অনুরুপ। পরবর্তী টিউনে টিকে ডোমেইন আরো কিছু বিষয় নিয়ে আলোচনা করব।
জ্ঞাতব্য বিষয়সমূহ:
১। আপনার ডোমেইন যে মেয়াদের জন্য রেজি: করেছেন সেই মেয়াদ পরিপূর্ণ হবার ১ সপ্তাহ পূর্বে নতুন করে রিনিউ করতে পারবেন। সুতরাং এইভাবে যতদিন ইচ্ছা ততদিন পর্যন্ত চালাতে পারবেন। যেখানে অন্য ফ্রি ডোমেইনে এই সুযোগ দেওয়া হয়না।
২। এখানে ফ্রি টিকে ডোমেইনকে কিছু অর্থ প্রদান করে সেখানে পেইড হিসাবে অপারেট করতে পারবেন। পেইড হিসাবে বছরে ৯ ডলার করে দিতে হয়।
৩। যদি টিকে ডোমেইন নিয়ে সেই সাইট যদি এডাল্ট কিংবা অবৈধ সাইট বানান, তাহলে ডোমেইনটি ব্লক হয়ে যেতে পারে।
৪। যদি সাইটে একদম ভিজিটর না থাকে তাহলে আপনার নামে রেজিকৃত ডোমেইন বাতিল হতে পারে। সুতরাং প্রতি মাসে কম করে হলেও সর্বনিম্ন ট্রাফিক ভিউ ৫০ থাকতে হবে। ৩ ও ৪ নং অপশনের পলিসী যদি সঠিকভাবে মেনে চলেন তাহলে আপনার ডোমেইন হারানোর ভয় নাই।
৫। যদি ইচ্ছাকৃতভাবে ডোমেইনটি বাতিল করে দেন তাহলে সাথে সাথে তা অন্য কোন ব্যক্তি তার নামে রেজি: করে নিতে পারবেন।  সেক্ষেত্রে কোন ওজর/অভিযোগ টিকে কর্তৃপক্ষ গ্রহন করবে না।
তবে যারা প্রাথমিকভাবে ডোমেইন প্যানেল সম্পর্কে ধারনা নিতে চান তাদের জন্য ফ্রি হিসাবে টিকে সাইটই আপনার জন্য উপযুক্ত। অপরদিকে প্রফেশনাল হিসাবে ব্লগিং/আপনার সাইটকে দাড় করাতে হলে কিন্তু পেইড ডোমেইনের বিকল্প কিছু নাই!!
Previous Post
Next Post

0 comments: Post Yours! Read Comment Policy ▼
লক্ষ্য করুনঃ
পোষ্টের সাথে সম্পৃক্ত নয় এমন কোন কমেন্ট করা যাবে না। কোন কারণ ব্যতীত আপনার ব্লগের লিংক শেয়ার করতে যাবেন না। সবসময় গঠনমূলক মন্তব্য প্রদানের চেষ্টা করবেন। আমরা সবার মতামত সমানভাবে মূল্যায়ন করি এবং যথাসময়ে প্রতি উত্তর দেয়ার চেষ্টা করি।

Post a Comment

 
Copyright © বিডি.পয়সা ক্লিক,নিবন্ধিত ও সংরক্ষিত. মডিফাইঃ পিসি টীম, সার্ভার হোস্টেডঃ গুগল সার্ভিস