Sunday, May 10, 2015

পিটিসি বিষয় নিয়ে একটি মেগা টিউন! যেখানে আছে পিটিসি সাইটের সংজ্ঞা, ইতিহাস এবং আয় করার কৌশল!! সাথে থাকছে বিশ্বখ্যাত কিছু পিটিসি সাইটের পরিচয়!!!

السلام عليكم আসসালামু আলাইকুম।

সুপ্রিয় টেকটিউনস কমিউনিটি সাইটের সবাইকে সালাম ও শুভেচ্ছা সবাইকে সালাম ও শুভেচ্ছা জানিয়ে শুরু করছি আজকের দিনের টিউন। অবশ্য টিউনের শিরোনামের পরিচয়েই বুঝা যাচ্ছে কোন বিষয় নিয়ে আলোচনা করতে যাচ্ছি। হ্যা আজকের টিউনে আমি যথাযথভাবে চেষ্টা করব পিটিসি সাইট সম্পর্কে জানাবার তথা বলতে পারেন এ টু জেড রিভিউ। তাহলে কথার কলেবর থামিয়ে এবার মূল আলোচনা পর্বে যাচ্ছি-

PTC (পিটিসি) সাইট কি?


প্রথমেই জেনে নিই PTC কি? PTC (পিটিসি) শব্দের পূনরূপ Paid to Click. বাংলায় ক্লিক থেকে টাকা। মূলত PTC (পিটিসি) সাইটে অ্যাডে ক্লিক করলেই টাকা দেয়। আবার অনেকে PTC সাইটকে ফ্রিল্যান্স সাইট বলে ভূল করবেন না। কারন প্রকৃতগতভাবে যত ফ্রিল্যান্স সাইট আছে সেখানে কোন Paid to Click বিষয়ক কাজের সুযোগ নাই। ফ্রিল্যান্স সাইটে কাজ করতে হলে আপনাকে বেশ অভিজ্ঞ হতে হবে, নিদিষ্ট কাজের পরীক্ষা, কোয়ালিফাই হয়েই তবে কাজ ও বিড করার সুযোগ পাবেন। অনেকে আবার ফ্রিল্যান্স সাইট বলতে বাংলাদেশে আবিষ্কৃত ভূয়া Dolencer/skylencer জাতীয় সাইটগুলোকে বলতে বোঝে। আরে ভাই Dolencer/skylencer সহ যে সাইট গুলোর উদ্ভব হয়েছিল তার কাজ ছিলো হুবহু পিটিসি সাইটের মত। অবশ্য Dolencer/skylencer এর কারনে বাংলাদেশ অনেকেই মনে করতে পারেন যে PTC সাইট মানেই ধোঁকা বাজি। কিন্ত না, শুধু ধৈর্য ধরে আসল সাইট চিনতে পারলে মাসে বেশ কিছু আয় করা যায়। কিন্তু সমস্যা হল আসল সাইট চিনা এবং নির্দেশনা মোতাবেক কাজ করতে না পারা। কারন প্রতিদিন নতুন নতুন সাইট অনলাইন এ আসে। ১-১২ মাসের  মধ্যে Scam করে চলে যায়।

PTC (পিটিসি) সাইট এর সংক্ষিপ্ত ইতিহাস


২০০৩ সালে সর্ব প্রথম PTC সাইট চালু হয়। England এর একজন এটা চালু করে। কিন্তু তখন PTC সাইট জনপ্রিয় হয়নি। ২০০৭ সালে আমেরিকা থেকে Jim Grago – ClixSense Inc (USA) চালু করে। ২০০৮ সালে পর্তুগাল থেকে Fernando Neobux নামক সাইট টি চালু করে। Neobux এর এখন আমেরিকায় অফিস আছে। ২০০৯ সালে Germany এর tim kolb চালু করে  Bucks247 নামের সাইটটি। ২০০৯ সালে  Finland এর Serenity & Saket (indian) নামের দুই জন versity student চালু করে Cashnhits নামের সাইটটি। পরে Serenity & Saket দুই জন বিয়ে করে, যাই হোক ২০০৯ সালে Dimitrios Kornelatos – “Kordim” (Greece থেকে) – Scarletclicks & gptplanet নামে দুইটি সাইট চালু করে। নাম প্রকাশ না করে কেও একজন আমেরিকার থেকে Ayuwage & Innocurrent নামের দুই টি কিছুটা ভিন্ন ধরনের সাইট চালু করে ২০০৯ ও ২০১০ সালে। আরও ১০-২০ টি সাইট আছে। যারা কোন ধরনের ঝামেলা ছাড়া ৫ বছর যাবত  payment  দিয়ে যাচ্ছে। কিন্তু Neobux/clixsence ছাড়া অন্য সাইট এর ইনকাম খুব কম। যারা নতুন তাদের জন্য আমি শুধু এই ২ টি সাইট এ কাজ করার পক্ষ পাতি।

পিটিসি সাইট কিভাবে কাজ করে এবং পে করছে?


হ্যা PTC এর পুর্ন মিনিং হচ্ছে "Paid To Click" অর্থাৎ বিভিন্ন বিজ্ঞাপন দাতারা যাদের বিজ্ঞাপনের বাজেট কম তারা তুলনামুলক কম মুল্যে পিটিসি সাইটে এড দেয় কিন্তু সেই এড দেখবে কে? তাই আমার আপনার মত লোকজন সেই এড গুলো দেখি এবং এই এড গুলো দেখার বিনিময়ে পিটিসি সাইট গুলো আমাদের নির্দিস্ট অর্থ প্রদান করে। আপনাকে সাইট গুলো প্রতিদিন একটি নির্দিস্ট পরিমান এড দিবে এবং আপনি সেই এড গুলো দেখবেন এবং প্রতি এড দেখার বিনিময়ে আপনাকে সর্বোচ্চ ১ সেন্ট হতে ১০ সেন্ট পর্যন্ত পে করে থাকে (ফ্রি মেম্বারশিপের ক্ষেত্রে)। এছাড়া আপনার রেফারেলে কেউ যদি ওই সাইটে রেজিস্ট্রেশন করে, তবে তাদের দেখা প্রতি এডের বিনিময়ে আপনি পাবেন সর্বোচ্চ ০.৫ সেন্ট করে (ফ্রি মেম্বারশিপের ক্ষেত্রে)।
  • অপরদিকে পিটিসি সাইট অ্যাডমিনদের মানে যারা পিটিসি সাইটের মালিক কর্তৃপক্ষ তাদের আরো দুটি ইনকাম আছে তথারুপঃ

১। পাবলিশার মেম্বারঃ

পূর্বেই বলেছি আমার আপনার মত বিজ্ঞাপন দাতারা নিজেদের কোন ব্যক্তিগত কিংবা ব্যবসায়িক সাইট প্রমোট করার জন্য উক্ত পিটিসি সাইটে বিভিন্ন বাজেট অনুযায়ী অ্যাডগুলো পাবলিশ করার সুযোগ পাই। ফলে তাদের বাজেটের তিন ভাগের ১ ভাগ অর্থ নিজেদের কাজে লাগাচ্ছে বাকিটা ইউজারদের ক্লিক রেটে বন্টন করা হচ্ছে। সহজ ভাষায় বলতে গেলে টিটিতে অর্থের বিনিময়ে কোম্পানীদের স্পন্সর করার মতো। সুতরাং পিটিসি সাইটের পাবলিশারদের ৫ টাকা থেকে তারা ২ টাকা কেটে রেখে বাকি ৩ টাকা বন্টন করছে। আরেকটি মজার ব্যাপার হল এখানে পিটিসি কোম্পানী গুলোকে অ্যাডের জন্য বসে থাকতে হয়না। আমার-আপনার মত অনেকেই পৃথিবীর বিভিন্ন প্রান্ত থেকে অ্যাড পাবলিশ করার জন্য সিরিয়াল করে আসে। সুতরাং পিটিসি সাইট গুলোতে কোন লিংকে ক্লিক করে যে সেন্ট/অর্থ পাই তার সিংহ ভাগই ঐ পাবলিশার অ্যাড হতে আসে।

২। আপগ্রেটেড/প্রিমিয়াম মেম্বারঃ

হ্যা এখানেও সাইটগুলোর ইনকামের সুযোগ থাকে। যেমন আপনি একটি সাইটে ফ্রি মেম্বার হয়েছেন কিংবা সাইটে বিনাশ্রমে কাজের জন্য রেফারেল হায়ার করবেন এবং আপগ্রেটেড করবেন সেখানে আপনাকে নিদিষ্ট অর্থের বিনিময়ে হতে হচ্ছে। সুতরাং এটাও পিটিসি সাইটের বড় মাপের ব্যবসা। এখানে আপনার মত ইউজারদের কাছ হতে টাকা নিয়ে হয়ত তারা কোন জায়গাতে ইনভেস্ট করে নতুবা আপনার প্রেরিত অর্থ দ্বারা আরো ১০ জন মেম্বারকে পে করা হচ্ছে।

লিগ্যাল VS স্ক্যাম পিটিসি

আপনি ভালো সাইট গুলো থেকে গড়ে রেফারেল ছাড়া দৈনিক ৩-৫ সেন্ট আয় করতে পারবেন। পিটিসি কাজ সম্পর্ক যানেন তাদের জন্য এই টিউন নয় যারা নতুন তাদের যন্যই আমার এই ক্ষুদ্র প্রচেষ্টা।


ইন্টারনেট অনেক পিটিসি সাইট আছে যার বেশির ভাগই ভুয়া (scam) পেমেন্ট করেনা। তাই সবার কাছে অনুরোধ থাকবে কোন সাইট দেখেই কোন খোজ খবর না নিয়ে কাজ করা শুরু করবেন না যেন। যে সাইটে কাজ করবেন তার সম্পর্কে গুগলে (google) এ সার্চ করুন সাইটি সম্পকে বিস্তারিত জানার চেষ্টা করুন। আমাদের আবার অনেকের স্বভাব রয়েছে কোথাও কোন ইনকামের লিংক কিংবা কথার ফুলঝুড়ি শুনেই কিছু না বুঝার আগেই বিপথে পা দিই। এই যেমন টিটি সহ অনেক ব্লগ সাইটে দেখেছি অনেকেই রেফারেল গোছানোর জন্য টিউমেন্ট বক্সে লিংক শেয়ার করছেন। এখানে অবশ্য লিংক শেয়ার করাটা দোষের দেখছি না। কিন্তু অসুবিধা হল যিনি লিংক শেয়ার করছেন তিনিও নিজেও জানেন না সাইটটি স্ক্যাম। এখানে আরেকটি ব্যাপার হল নতুন সাইট দেখে তিনিও যোগ দান করেছেন। নতুন স্ক্যামকৃত পিটিসি সাইটে আকর্ষণীয় বিজ্ঞাপন থাকতে পারে যেমন প্রতি রেফারেল আপগ্রেটেড হিসাবে ১০ ডলার হইতে ১০০ ডলার বোনাস!! সুতরাং বুঝতেই পারছেন কেন সে আপনাকে সাইটগুলো রেফার করছে। অপরদিকে তার নিজেরও কোন প্রমান প্রুফ নাই যে তিনি পেমেন্ট পেয়েছেন। সুতরাং সাধু সময় থাকতে সাবধান! অযথা সাইটে কাজ করে সময় নষ্ট করবেন না। যদি পিটিসি সাইটে কাজ করতেই হয় তাহলে প্রমাণ স্বাপেক্ষ হিসাবে লিগ্যাল সাইটে কাজ করার চেষ্টা করবেন।

কিভাবে বুঝা যাবে সাইটগুলো লিগ্যাল?

বর্তমানে সব মিলিয়ে প্রায় ১০,০০০ উপর পিটিসি সাইট রয়েছে যার ৯৯% ভূয়া। তথাপি প্রায় প্রতিদিনে প্রায় ১০ টি করে পিটিসি সাইট মুক্ত হচ্ছে। এই সকল নতুন চালুকৃত পিটিসি সাইটে অনেক বাহারী অফার থাকে যেগুলো ভিজিটরদের দৃষ্টি আকর্ষন করে। তথাপি স্ক্যাম সাইট পিটিসি অ্যাডমিনদের টার্গেট থাকে কিছু ডলার ইনকাম করে সাইটটি লাপাত্তা করা। অবশ্য আসল নকল সাইট কিভাবে চিনবেন সেই সম্পর্কে টিটিতে একটি টিউন করেছিলাম এখানে

পিটিসি সাইট গুলোতে কাজের মাধ্যমে  কতটা উপার্জন করা যায়?

সত্যিকার অর্থে আমরা যতই ঢাকঢোল পিটাই না কেন পিটিসি সাইটে ইনকামের প্যাচকল রয়েছে। যেমন আপনি যদি কোন একটি লিগ্যাল পিটিসি সাইটে কাজ করেন কোন রুপ রেফারেল ছাড়া তাহলে মাসিক আয় ২ ডলারের বেশী হবেনা। অবশ্য সেখানে যদি ৫ জন রেফারেল থাকে এবং রেফারেলগুলো নিয়মিত কাজ করে তাহলে হয়ত মাস শেষে আরো ১ ডলার বেশী হতে পারে। অর্থাত ২+১ = ৩ ডলার আসবে। অর্থাত পিটিসি সাইটের আসল ইনকামের রহস্য হল রেফারেল। যত বেশী রেফারেল তত বেশী ইনকাম। অনেক ক্ষেত্রে অর্থের বিনিময়ে রেন্টেড রেফারেল হিসাবে আয় বৃদ্ধি করা হয়।

আপনাদের একটা ছোট্ট হিসাব দেখাই, Suppose আপনি ৫টি অ্যাকাউন্ট খুললেন এলিট এবং লিগিট সাইট মিলিয়ে, প্রত্তেক সাইট দিনে ৪ সেন্ট করে পে করে। So, রেফারেল ছাড়া দিনে ৫টি সাইট থেকে আয় করতে পারবেন ২০সেন্ট করে এবং মাসে (২০*৩০)=৬০০ সেন্ট মানে ৬$ মানে ৫০০টাকা।
আবার, ম্যাক্সিমাম সাইট গুলো পার রেফারেল ক্লিকে করে পে করে ০.৫ সেন্ট করে। আপনার যদি ১০জন ডাইরেক্ট রেফারেল থাকে আর তাদের Daily এভারেজ ক্লিক হয় ২.৫ তবে একটি সাইট থেকে আপনার ডেইলি ইনকাম (.৫*২.৫*১০)= ১২.৫ সেন্ট + আপনার নিজের ইনকাম ০.৪সেন্ট= (১২.৫+৪)= ১৬.৫ সেন্ট সুতরাং ৫টি সাইট থেকে দৈনিক আয় (১৬.৫*০৫)= ৮৩ সেন্ট, সুতরাং ৩০দিনে আয় (৮৩*৩০)= ২৫০০সেন্ট বা ২৫$ (প্রায়) বা ২০০০টাকা তবে প্রতি মাসে আপনি টাকা হাতে আনতে পারবেন না হয়তো দেখা গেলো ৩-৪ মাসে ৫০$-১০০$ জমল তখন পেজাতে ৪ ডলার ফি দিয়ে চেক নিজের একাউন্টে ট্রান্সফার করা যাবে।

কিভাবে রেফারেল সংগ্রহ কিংবা বৃদ্ধি করা যায়?


রেফারেল কিভাবে সংগ্রহ করতে হয় এই বিষয় নিয়ে নতুন করে আলোচনার প্রয়োজন নাই। আপনার পরিচিতজন থাকলে সেখানে শেয়ার করতে পারেন। নিজের ব্লগ, সোস্যাল মিডিয়াতে পাবলিশ করতে পারেন। অপরদিকে বেশ কিছু পাবলিশিং সাইটে রেফারেল সহ ব্যানার তৈরি করে দিতে পারেন ফলে যারা সাইনআপ করবে তারা আপনার রেফার হয়ে যাবেন। অবশ্য এই পদ্ধতি বেশী অনুসরন করা হয় ও অধিক কার্যকর। তথাপি বেশ কিছু অর্থ খরচ করতে হয়। যেমনঃ আপনি যে পিটিসি সাইটে কাজ করছেন সেখানে বিজ্ঞাপন দাতা হিসাবে কোন পিটিসি সাইটের রেফার অ্যাড করতে পারেন। তাছাড়া পিটিসি সাইট হতে রেন্টেড রেফার হায়ার করতে পারেন।

পিটিসি সাইট কাদের জন্য এবং আমার ব্যক্তিগত অভিমত

সব পিটিসি সাইটের আয় খুবই কম। যা দিয়ে আপনি মূলত নেট বিল এবং পরবর্তীতে যখন আপনি বুঝতে পারবেন রেফারেল কিভাবে ভাড়া নিতে হয়, ডাইরেক্ট রেফারেল পাওয় এবং মেম্বারশীপ আপগ্রেড করলে কি সুবিধা। আপনি পিটিসি সাইটে ভাল আয় করতে হলে ৩-৬ মাস সময় দিতে হবে। প্রথম দিকে আপনার আয় হবে খুবই কম।

পিটিসি সাইট যাদের জন্য কাজের উপযোগীঃ
  • যারা একবারেই অলস।
  • অনলাইনে কোন কাজ সম্পর্কে ধারনা নাই কিন্তু মামুলি কিছু আয় করতে চান।
  • গৃহিণী, অক্ষম ব্যক্তি।
  • অযথা যারা ফেসবুকে বা অন্যান্য সাইটে অনর্থক সময় ব্যয় করে।
পিটিসি সাইট যাদের জন্য কাজের উপযোগী নইঃ

  • যারা নিজের ইংরাজী ব্লগ সাইটে এবং ফ্রিল্যান্স সাইটে কাজ করে
  • গুগল সহ যারা অন্য কোন অ্যাফিলিয়েটিং সাইটে কাজ করছেন
  • যারা অতি তাড়াতাড়ি টাকা কামাইতে চায়।
  • অনলাইনে অন্যান্য কাজের দক্ষতা আছে বা শেখার আগ্রহ এবং সুযোগ রয়েছে।

যেমনঃ ব্যক্তিগতভাবে নিজের অভিজ্ঞতাতে বলছি প্রায় ৩ বছর পূর্বে ২০১৩ সনে আমি কোন ব্লগিং ফ্রিল্যান্স করা জানতাম না। কিন্তু নেটে যথেষ্ট সময় দিতাম। তখন পকেটে অর্থাত নেট খরচ উঠানোর জন্য ২ টি পিটিসি লিগ্যাল সাইটে একাউন্ট ওপেন করি যথারুপ নিওবাক্স, ক্লিকসেন্সে। প্রথম ১ বছরে আয় ভাল ছিলনা। অর্থাত মাসে ১ টি সাইট হতে ২-৩ ডলার আসত। অতপর কৌশল পরিবর্তন করি যেমন কিছু অর্থের বিনিময়ে পাবলিশিং ও রেন্টেড রেফার ক্রয় করলাম। নিজের ব্লগ ও সোস্যাল সাইটে প্রচারনা করলামস। তারপর হতে ইনকাম বৃদ্ধি পেতে লাগলো। বর্তমানে আমার ঐ সকল প্রতিটি সাইটে রেফার প্রায় ১০০০ এর কাছাকাছি যার অধিকাংশই বিদেশী। তথাপি সাইট হতে প্রতিদিনে কোন কাজ না করেই ০.৮৫-১.১০ ডলার পর্যন্ত আয় হয়। ২০১৪ এর পর হইতে পিটিসি সাইটে কোন কাজ করা হয় না তথা সময় দিইনা। তবে একাউন্ট সক্রিয় থাকার জন্য মাসে ১ দিন ভিজিট করি। বর্তমানে নিজের ব্লগিং, ফ্রিল্যান্স সহ অন্যান্য কাজে ব্যস্ততার দরুন সময় দেয়া হয়না। আরেকটি কথা যারা ফ্রিল্যান্স সাইটে প্রফেশনালভাবে কাজ করছেন, বেশ ভাল বাজেটের কাজ করেন তখন ফ্রিল্যান্স ব্যতিত অন্য ইনকামের সাইটগুলোতে কাজের আগ্রহ হারিয়ে ফেলেন। তার কারন হল ফ্রিল্যান্স সাইটে আপনি যে অর্থ আয় করছেন তার নেশাটা আপনাকে জাগিয়ে তুলেছে। সুতরাং বুঝতেই পারছেন।

পরিচিত হই বেশ কিছু বিশ্বখ্যাত লিগ্যাল পিটিসি সাইটের সাথে

  •  ক। ক্লিকসেন্স সাইট

“ক্লিকসেন্স ”একটি অন্যতম PTC সাইট, যে সময়মত টাকা দেয়। এবং পিটিসির জনক বলে আখ্যায়িত করা হয়। বিশ্বের বিভিন্ন দেশসহ বাংলাদেশে এটির খুবই জনপ্রিয়তা আছে। Clixsense ২০০৬ সালে তৈরী হয়। অনলাইনে যাত্রা শুরু করে ২০০৭ সালে। এবং পিটিসি সাইটের দিক হতে এটিই শীর্ষ অবস্থানে। এর জনপ্রিয়তার অনেক কারন আছে যেমন- এটি সময়মত টাকা দেয়, প্রচুর add পাওয়া যায়, বাংলাদেশ থেকে কাজ করা যায় এবং টাকা তোলা যায়। Payza, Paypal, LR ইত্যাদি মাধ্যমে টাকা দেয়।  আপনিও Clixsense এ রেজিস্ট্রেশন করে আজই আয় করতে শুরু করতে পারেন। ক্লিক করে টাকা আয়ের একটি জনপ্রিয় পিটিসি সাইট ক্লিকসেন্স। এই সাইটে ক্লিক করে বিজ্ঞাপন দেখে যেমন টাকা পাওয়া যায় তেমনি ক্লিক্সগ্রিড সহ আরো কিছু পদ্ধতিতে টাকা আয় করা যায়। এসবের সাথে “সার্ভে” এবং “অফার” “টাস্ক”সহ আরো কিছু কাজের ব্যবস্থা যোগ করা হয়েছে। এই সাইটের বর্তমান ইউজার সংখ্যা ৫,৩০১,৫১৭ জন, এবং পে করা হয়েছে প্রায় $13,408,327.33। তারা অর্থ দেয় চেক, পেপল এবং এলার্ট পে এর মাধ্যমে। আমেরিকার বাইরে চেকের জন্য ১০০ ডলার জমা হতে হয়। এলার্ট-পে সে তুলনায় কম টাকা (8$) জমা হলেই পাওয়া যায়। আমার জানা মতে অনেকে শুধু পিটিসি থেকে খুব ভাল পরিমাণ আয় করে, ক্লিকসেন্স ফোরাম তার প্রমাণ। এখানে অনেক বাংগালী পাবেন।

সাইটে যোগদান ও রিভিউ করতে হলে ফলো করুন এখানে

  • খ। নিওবাক্স

নিওবাক্স এমন একটি পে টু ক্লিক সাইট যাকে সকল পিটিসি সাইটের জননী বলা হয়। এবং পিটিসি সাইটের দিক হতে ২য় অবস্থানে আছে। এর ম্যানেজমেন্ট অত্যান্ত শক্তি শালী আর তাই এ সাইট সফলতার সাথে বিগত প্রায় ১০ বছর ধরে পে করে আসছে। এর মালিকানা ফার্নান্দো অব পর্তুগাল। ২০০৮ সাল হতে কার্যক্রম শুরু করে পে করে আসছে। এবং এখন পর্যন্ত কোন পে প্রদান না করবার ফ্রড পাওয়া যায়নি। এদের সদস্য সংখ্যা প্রায় ১২,৫০০ এবং এই পর্যন্ত পে করেছে ১২৩,১৫৭ ডলার। এই সাইটের ইনকামের অন্যতম বৈশিষ্ট হল অ্যাডভাইজিং হিসাবে নিজের অ্যাড পাবলিশ করতে পারবেন। Payza, Paypal, LR ইত্যাদি মাধ্যমে টাকা দেয়।

সাইটে যোগদান ও রিভিউ করতে হলে ফলো করুন এখানে

 নির্দেশনাঃ

Neobux এবং clixsence ছাড়া অন্য সাইট এর ইনকাম খুব কম। যারা নতুন তাদের জন্য আমি শুধু এই ২ টি সাইট এ কাজ করার পক্ষ পাতি। তথাপি এর পরেও আরো কিছু সাইট আছে কিন্তু কখনো তাদের সমকক্ষ হতে পারবে কিনা সন্দেহ আছে! পূর্বেই অবগদ করেছি সাইটগুলা প্রথমদিকে পে করে, ২/১ বছর পার করেই স্ক্যাম হয়ে যায়। এবং এই ধরনের অনেক সাইটগুলোই স্ক্যাম হয়েছে ও হচ্ছে। যাইহোক বর্তমানে আরো কয়েকটি নতুন সাইট চালু হয়েছে, ভাল ভাবে পে করছে এবং সাইটগুলো পপুলারিটি ও ইউজার সংখ্যা বৃদ্ধি করার জন্য Neobux/clixsence হইতে কিছুটা বাড়তি সুবিধা দিচ্ছে যেমন অ্যাডের সংখ্যা কম কিন্তু অর্থের পরিমাণ/সেন্ট বেশী। সাইটগুলোর পরিচয় নিম্নরুপ
  • গ। ট্রাফিক মৌসুমঃ

খুবই অল্প সময়েই এই সাইটটি সবার দৃষ্টি কেড়েছে। এই সাইটের আর্কষণ হল ইনস্ট্যান্ট প্রেমেন্ট করে  Payza, PayPal এবং Solid Trust এ। এর বেশিরভাগ ক্যাশ লিংক ০.০১ থেকে ০.০০৫ ডলার। অ্যাডের সংখ্যা বেশ কম তথাপি নিওবাক্স, ক্লিকসেন্স হইতে সেন্ট পরিমাণ বেশী। কোন কোন দিন ক্যাশ লিংক  সকালে এবং বিকালে দিনে দুই বার দেয়। রেফারেল আনিং এর ১০০% কমিশন দেয়। ওয়েব সাইট বা যেকোন সাইটের ফ্রি এডভারটাইজ করা যায়। ২০১৪ সালের ৩০ শে আগষ্ট সাইটটির জন্ম, কার্যক্রম শুরু করে ১লা জানুয়ারী ২০১৫। মাত্র ২ ডলার হলেই পেইজা, পেপাল, সলিড ট্রাষ্টে পে করে। অবশ্য অামি এই সাইট হইতে ২ বার পে পেয়েছি।

সাইটে যোগদান ও রিভিউ করতে হলে ফলো করুন এখানে

  • ঘ। ইউসক্লিক্স

এটি একটি নতুন সাইট। ২০১৫ সাল হতেই কাজ শুরু করেছে এবং এই পর্যন্ত পে করেছে প্রায় ২৬৭,৭৯০ ডলার। এখানে প্রায় ৪ লক্ষাধিক ইউজার রেজি: হয়েছে। আরেকটি বিষয় হল এটি ইউকে কর্তৃক রেজিঃ অন্তভূক্ত কোম্পানী। এই সাইটের অ্যাডের নিয়মিত সংখ্যা প্রায় ২০ টি, কাজ করতে প্রায় সময় লাগে ৬-৭ মিনিট। মাত্র ৩ ডলার হলেই পেপাল, পেইজা, নেটেলরে পে করে থাকে।

সাইটে যোগদান ও রিভিউ করতে হলে ফলো করুন এখানে

  • ঙ। অ্যাড ফাইভার

এটিও একটি সম্পূর্ণ নতুন পিটিসি সাইট। ২০১৫ সালে চালু হয়েছে এবং অলরেডি পে করা শুরু করেছে। তথাপি আমেরিকার দেলওয়ার কোম্পানী কর্তৃক নিবন্ধকৃত। প্রায় ১০ লক্ষ ইউজার এই সাইটে যুক্ত হয়েছে। অল্প সময়েই ইউজারদের দৃষ্টি আকর্ষন করতে সক্ষম হয়েছে। এই সাইটের বেশকিছু বৈশিষ্ট্যর কারনে অন্য সাইট হতে আলাদা।  এই সাইটের অ্যাডের সংখ্যা প্রায় ১৩ টি। কাজ করতে সময় লাগে মাত্র ২/৩ মিনিট। তাছাড়া সাইটে প্রটেকশন ব্যবস্থাটাও বেশ ভাল। মাত্র ৩ ডলার হলেই পেইজা, পেপাল, নেটেলর একাউন্টে উইথড্র করতে পারবেন। এবং হ্যা ইচ্ছা করলে আপনি বিট কয়েন সাইট তথা কয়েনবেইজ সাইটেও উইথড্র করতে পারবেন। মূলত যারা বিট কয়েন আয় করছেন তাদের কাছে এটি একটি সুবর্ন সুযোগ বলে মনে করি। সুতরাং এই কারনে সাইটটি আমার ভাল লেগেছে এবং আমার বন্ধুদের অনেকেই ফাইভারে কাজ করছে। এর মধ্য ১ বার উইথড্র করতে পেরেছে।

সাইটে যোগদান ও রিভিউ করতে হলে ফলো করুন এখানে

রেজিঃ ও কাজের পক্রিয়া

প্রায় সকল সাইটের রেজিঃ ও কাজের প্রসেস একই রকম, হয়ত কিছু ইন্টারফেস পার্থক্যগত থাকতে পারে। এখানে আপনার নাম, ইউজার নেম, পাসওয়ার্ড এবং ইমেইল আইডি ঠিকানা ইনপুট করতে হবে। মেইলে বার্তা যাবে, সুতরাং মেইলটির লিংক ভেরিফাই করতে হবে। অতপর পিটিসি সাইটে লগইন করে সেখানে অ্যাড ভিউতে বেশ কিছু অ্যাড পাইবেন। সেইগুলোতে ক্লিক করতে হয়, সময় নেয় সাধারনত ০.৫ সেকেন্ড হতে সর্বোচ্চ ৩০ সেকেন্ড। প্রতি ক্লিকে সেন্ট জমা হতে থাকে। নিয়মিত কাজ করলে অ্যাডের সংখ্যাটাও বৃদ্ধি পাইতে থাকে। আরেকটি ব্যাপার সাইটে কোন কাজ না করলে প্রতি ৪৫ দিন পর সাইটগুলোতে লগইন করে অ্যাডে ক্লিক করতে হবে। তাহলে একাউন্ট ব্লক কিংবা ডিলেট হবে না। এখানে আপনি রেফারেল কিংবা অ্যাড ফান্ড যোগ করেও কিছুটা সেন্ট বৃদ্ধি করতে পারবেন।

সারকথা

টিউনের আলোচনার একদম শেষ প্রান্তে। আশা করি  টিউটোরিয়াল অনুযায়ী পিটিসি সম্পর্কে কিছুটা হলেও ধারনা নিতে পারবেন এবং ইচ্ছানুযায়ী কাজ করতে পারবেন। তথাপি আপনি নেটে ইনকামের জন্য যেখানেই কাজ করুন না কেন একটু সময় দিতেই হবে। অপরদিকে বিটিসি করুন কিংবা পিটিসিতে কাজ করুন, অনন্ত ফ্রিল্যান্স শেখবার ও জানার চেষ্টা করবেন। ফ্রিল্যান্স বিষয়ক জানতে  টিটি সহ অনেক ব্লগ সাইটে ভাল ভাল টিউন পাবেন। তথাপি এই বিষয়েও বর্তমানে ইউটিউবে টিউটোরিয়াল সহ বাজারে ভিডিও সিডি পাওয়া যায় যা আপনাকে অনেকটা কাজে দিবে। মূল ব্যাপার হল ফ্রিল্যান্স বিষয়ে জানার/শেখার আপনার প্রবল আগ্রহ ও সদিচ্ছা থাকতে হবে। তাহলেই হয়ত প্রফেশনাল না হলেও ছোটখাট ফ্রিল্যান্সার হওয়া থেকে আপনাকে কেউ থমকাতে পারবে না। পরিশেষে টিউন সম্পর্কে কোন অভিযোগ/সমস্যা থাকলে টিউমেন্ট করতে পারেন। সবাই ভাল থাকবেন, আজ এই পর্যন্তই পরবর্তী টিউনে সাক্ষাৎ হবে।
Previous Post
Next Post

1 comments: Post Yours! Read Comment Policy ▼
লক্ষ্য করুনঃ
পোষ্টের সাথে সম্পৃক্ত নয় এমন কোন কমেন্ট করা যাবে না। কোন কারণ ব্যতীত আপনার ব্লগের লিংক শেয়ার করতে যাবেন না। সবসময় গঠনমূলক মন্তব্য প্রদানের চেষ্টা করবেন। আমরা সবার মতামত সমানভাবে মূল্যায়ন করি এবং যথাসময়ে প্রতি উত্তর দেয়ার চেষ্টা করি।

  1. Try Those Sites In Below, they Are 100% Real H.Y.I.P & Bitcoin Mining Sites [Never Lost Your Deposit As Like Forex Scam], 100% User & Investor satisfaction & over MANY days on Online they are Trusted Old Sites Too. || More Question: visit my Blog & may contract with me: http://trk.as/za3v ||

    https://ore-mine.org/?r=105676

    https://pokeram.com/?ref=aynul

    https://www.genesis-mining.com/a/sEuVIU

    http://www.minerfarm.com/login?r=10319#toregister

    https://bitcointraders.in/?ref=aynul

    https://exmo.com/?ref=162015

    ReplyDelete

 
Copyright © বিডি.পয়সা ক্লিক,নিবন্ধিত ও সংরক্ষিত. মডিফাইঃ পিসি টীম, সার্ভার হোস্টেডঃ গুগল সার্ভিস